খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় সরকার নাটক করছে: রিজভী

0
486

কারাগার থেকে খালেদা জিয়াকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে হাসপাতালে এনে সরকার নাটক করেছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদ। শনিবার বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনের বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন তিনি।

রিজভী বলেন, দেশনেত্রীর আজকে চিকিৎসার কিছুই হয়নি। শুধুমাত্র হেনস্তা করা হলো, হয়রানি করা হলো। হাসপাতালে নিয়ে এসে তাকে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া হলো। শুধু মানসিকভাবে শারীরিকভাবে কষ্ট দেয়ার জন্য সরকার এই নাটকটি করেছে, এই বায়স্কোপটি করেছে, এই প্রহসন করেছে। বেগম খালেদা জিয়ার প্রতি সরকারের বাতিকগ্রস্ত উদ্ভট এহেন আচরণের তীব্র প্রতিবাদ ও ধিক্কার জানাচ্ছি।

রিজভী অভিযোগ করে বলেন, বেগম খালেদা জিয়াকে সম্পূর্ণ অপ্রস্তুতভাবে হাসপাতালে আনা হয়েছে। বুঝাই যাচ্ছে তাকে অনেকটা জোর করেই নিয়ে আনা হয়েছে। আমরা শুনেছি, কারাগারে তার কক্ষে গিয়ে বার বার তাগিদ দিয়েছে ৭-৮ কর্মকর্তাসহ কারারক্ষী দ্রুত প্রস্তুতি নিতে।

তিনি বলেন, আমরা টেলিভিশনে কাঁচের পর্দায় যতটুকু দেখেছি, আমাদের প্রিয় নেত্রীকে তো কখনো এভাবে দেখিনি, এই লেবাসে কখনো দেখিনি। একজন ধর্মপ্রাণ মুসলিম নারী হিসেবে ৩০-৩২ বছর ধরে তিনি শাড়ির ওপরে চাদর অথবা ওড়না পরিধান করেন। আজকে সেটি পরিধান করারও সুযোগ দেয়া হয়নি। এই সরকার এত কুিসত মনোবৃত্তির যে একজন বয়স্ক নারী যিনি তিনবারের প্রধানমন্ত্রী তাকে চাদর অথবা ওড়না পরিধান করার সুযোগটা পর্যন্ত দেয়া হয়নি।

তিনি আরো বলেন, শুধু তাই নয় দেশনেত্রীকে একরকম জোর করেই গাড়িতে উঠিয়ে হাসপাতালে আনা হয়েছে। পিজি হাসপাতালের ৫১২নং কক্ষে তাকে নিয়ে আসা হয়। কিন্তু চিকিত্সার নামে হাসপাতালে নিয়ে আসাটা এখন মনে হচ্ছে একটা প্রহসনের নামান্তর। কোনো চিকিত্সাই সেখানে তাকে দেয়া হয়নি। তার ব্যক্তিগত চিকিত্সকদের কোনো পরামর্শ প্রদানের কোনো সুযোগ দেয়া হয়নি। আইনেও আছে, একজন বন্দি পূর্বে যেসব চিকিৎসকদের চিকিৎসা নিতেন কারাগারেও তাদের চিকিত্সা নিতে পারবেন। সেই অধিকার থেকেও বঞ্চিত করা হয়েছে এদেশের সর্বাধিক জনপ্রিয় নেত্রী যিনি অবাধ সুষ্ঠ নির্বাচন হলে বিপুল ভোটে জিতবেন এবং তার দলকে বিজয়ী করবেন।

রিজভী আরো বলেন, সুচিকিৎসার অভাবে দেশনেত্রীর কোনো ক্ষতি হলে এর দায় সরকারকেই নিতে হবে। বেগম জিয়ার অগ্রযাত্রা বলপূর্বক প্রতিহত করে কোনো লাভ হবে না। দেশনেত্রীকে কোনোভাবে টলানো যাবে না। অদৃশ্য গণতন্ত্রের পুনরুজ্জীবিত করতে তিনি ধ্রুব তারার মতো স্থির অবিচল লক্ষে সব বাধা অতিক্রম করে এগিয়ে যাবেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসাপাতালে খালেদা জিয়াকে আনার সময়ে উপস্থিত নেতাকর্মীদের ওপর পুলিশি হামলা ও সেখান থেকে ১৩ জনকে গ্রেফতারের ঘটনার নিন্দা জানান রিজভী।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, দলের ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপক এজেডএম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আবদুস সালাম, শাহাজাদা মিয়া, হাবিবুর রহমান হাবিব, অধ্যাপক সিরাজউদ্দিন আহমেদ, অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক মীর ফাওয়াজ হোসেন শুভসহ স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম বাচ্চু, রফিকুল ইসলাম, জাহানারা বেগম, ডা. সাইফউদ্দিন নিছার আহমেদ তুষার, ডা. মোফাখারুল ইসলাম রানা, ডা. জাহেদুল কবির, ডা. মো. জাফর ইকবাল, ডা. ওয়াসি খান জনি, ডা. মো. হুমায়ুন কবির প্রিন্স প্রমুখ।

Leave a Reply