ঢামেকের ফুটপাতে জ্যান্ত নবজাতক!

0
333

অ আ আবীর আকাশ: ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উত্তর গেট ফুটপাত থেকে মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে ময়লার ডাস্টবিন এর পাশে পড়ে থাকা সদ্য ভূমিষ্ঠ হওয়া নবজাতককে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালের মর্গে পাঠায় শাহবাগ থানার টহল পুলিশের সাব-ইন্সপেক্টর সাইফুল ইসলাম।

ঘটনার বিবরণে প্রত্যক্ষদর্শী সোহেল নামের এক ভিক্ষুকের দেয়া তথ্যের মাধ্যমে জানা যায়, সে ঢামেক হাসপাতালে উত্তর গেটের অর্থাৎ বাগান গেটের রাস্তার বিপরীতে ডাস্টবিনের পাশে প্রস্রাব করতে বসলে একটি ফিরোজা রঙের শপিং ব্যাগ দেখতে পায়। তার মনে সন্দেহ হলে সে ব্যাগটি ধরলে ভেতরে কিছুটা নড়াচড়া করছিলো বুঝতে পায়। ভেতরে থাকা কাপড় ছোপড় ফুটপাতে ঢেলে দিতেই বেরিয়ে আসে সদ্য ভূমিষ্ঠ হওয়া ছেলে শিশু। এসময় শিশু বাচ্চাটি জীবিত ছিলো বলে সে জানায়। পরিস্থিতি দেখে সোহেল চিৎকার শুরু করলে লোকজন জড়ো হয়।ততোক্ষণে নবজাতকের প্রাণ বাতি নিভে যায়।

নবজাতকের মাথায় পেটে রক্তাক্ত জখমের চিহ্ন রয়েছে। নাভিতে নীল রঙের ক্লিপ লাগনো ছিল তখনও। সদ্য ভূমিষ্ঠ হওয়া নবজাতক শিশু ছেলে হওয়ায় পথচারী উৎসুক জনতা আফসোস ও তার গর্ভধারীনীকে ঘৃণা এবং ধিক্কার দিতে থাকে।

অপরদিকে পঞ্চাশ গজ দূরের ফুটপাতের চায়ের দোকানের কর্মচারী রাকিব (১১) জানায়, দুপুরের দিকে একজন শ্যাম বর্ণের মহিলা আমার দোকানে এসে কান্নাকাটি করতে থাকে। আমি কয়েকবার তাকে সাধলেও সে কিছুই খায়নি। দেখলাম সে অঝোরে কান্না করতে করতে হাসপাতালের দিকে ঢুকে গেল।

এদিকে পরিস্থিতি সামাল দিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু নামের এক শিক্ষার্থী ৯৯৯ নাম্বারে ফোন করে বিষয়টি অবগত করলে শাহবাগ থানার টহলরত পুলিশের সাব ইন্সপেক্টর মোঃ সাইফুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং তিনি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করে ঢামেক হাসপাতালের মর্গে বাচ্চাটিকে নিয়ে যান।

Leave a Reply