নির্বাচন ছাড়াই শ্রমিক প্রতিনিধি সেজে আছে বন্দরের অসংখ্য নেতা

0
1710

আনিসুর রহমান: চট্টগ্রাম বন্দরে শ্রমিকদের নিয়েই সব কাজ, আর এই শ্রমিকের মাথা বেচা-কেনা করতে হয় শ্রকিম নেতার। এভাবে হাজারো টাকা চলে যায় শ্রমিক নেতাদের পকেটে। কেউ এই সংগঠন আর কেউ সাবেক নেতা। মালিকরাও কম টাকা দিয়ে কাজ করার সেই সুবিধা নিচ্ছে শ্রমিক নেতাদের থেকে ।

বন্দরের বহিঃরঙ্গরে কাজ করাতে প্রতিটি জাহাজে স্টাফের বেতন ২২০০ টাকা কারো বেতন ১৮০০ টাকা। অথচ তা না দিয়ে কাজ করাচ্ছে অনেক বার্থ অপারেটর আর শিপিং হ্যাডেলিং অাপারেটর। এতে শ্রমিক নেতাদের পকেটে কিছু যায়। ৫০০ টাকা শ্রমিককে দিয়ে কাজ করাতে অসুবিধা নেই মালিকের। তা বেচে যায় মলিকের হাজারো কোটি টাকা। হাজরো জাহাজে এমন ঘটনা হচ্ছে।
মালিকের অফিস পিওন দিয়ে জাহাজ খালাশ করাচ্ছে। আর অনেক জাহাজে একজন সুপারভাইজার আছে, নেই কোন ফোরম্যান। শ্রমিক কমদিয়ে কাজ করানো মালিকের কাজ।
এসব বিষয়ে শ্রমিক নেতা জেনেও, না জানার মতো হয়ে আছে। শ্রমিক নেতা এমন করতেছে কারন তারা তো অনির্বাচিত শ্রমিক নেতা। ১/১১ পর থেকে অনেক সংগঠনের নির্বাচন হয়নি, কোন কোন সংগঠনের নির্বাচন হয়েছে ৫ বছর আগে যা শ্রমিক আইনের নেই।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে