চট্টগ্রাম বন্দর সংশ্লিষ্ট শ্রমিক কর্মচারীরা, পাচ্ছে না ন্যায্য অধিকার

0
362

আনিসুর রহমান, চট্টগ্রাম বন্দর দেশের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। যার উপর নির্ভর করে আয় হয় শতকোটি ডলার। তার জন্য সবচেয়ে বেশি অবদান বন্দর শ্রমিকদের। সে শ্রমিকরা নির্যাতিত তা হোক সিএনএফ কর্মচারীরা ডাক শ্রমিক মার্চেন্ট শ্রমিক বন্দর স্টাফ

কর্মচারী। অথচ সে শ্রমিকরা তাদের ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত।
যাদের ১/১১ পর থেকে আজ মালিকরা শুসিয়ে নিচ্ছে শ্রমিকদের। দেখার কেউ নেই, জনপ্রতিনিধিরা ও এখন মালিক পক্ষে সাথে মিলেছে। আগে শ্রমিকদের খবর নিয়ে ছিলো চট্টগ্রামের সিংহ প্রয়াত জননেতা এ বি এম মহিউদ্দীন চৌধুরী। যার কথা শুনলে শ্রমিকরা আজও কাঁদে। আরো ছিলো জহুর আহম্মদ চৌধুরী, জনাব সিরাজ আহম্মদ মতো শ্রমিক নেতা । কিন্তু বর্তমান অবস্থা আরো বেগতিক। শ্রমিকদের দেখার কেউ নেই।
সময়ের সাথে শ্রমিকের টাকায় মালিকরা আজ কোটিপতি যারা একসময় দিতে পারেনি অফিসের ভাড়া।
সিএনএফ কর্মচারীদের রাতদিন ২৪ ঘন্টায় ১৮ ঘন্টা যায় কাজের মধ্যেদিয়ে। সে সিএনএফ কর্মচারীর বেতন ১০ থেকে ১২ হাজার টাকা। অথচ শ্রম আইনে আছে ৮ ঘন্টা।অতিরিক্ত কাজের জন্য অতিরিক্ত বেতন দিতে হয় অথচ তা পাচ্ছে না তারা। এত কিছুর মাঝেও নির্যাতিত সে সিএনএফ কর্মচারীরা কাজ করে যাচ্ছেন অনবরত । শ্রমিকের কাজের সময় মালিকের মাথায় থাকে না শ্রম আইনের নিতিমালা।
বন্দরের শ্রমিক-মালিকদের মধ্যে ভাল সম্প্রীতি  গড়ে উঠুক এবং শ্রমিকরা তাদের ন্যায্য অধিকার ফিরে পাক সেটাই সবার দাবি।

Leave a Reply