লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে নৌকা ইতিহাস সৃষ্টি করবেঃ অানোয়ার খান

0
785

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে নৌকা ইতিহাস সৃষ্টি করবে বলে মন্তব্য করেছেন লক্ষ্মীপুর-১ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি ড. আনোয়ার হোসেন খান। বৃহস্পতিবার রামগঞ্জে মোটর শোভাযাত্রা শেষে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

ড. আনোয়ার খান বলেন, গত ৪৭ বছর রামগঞ্জ থেকে আওয়ামী লীগ বিজয়ী হতে পারেনি। তবে এইবার এখানে নৌকার গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। ৩০ তারিখ নির্বাচনে লক্ষ্মীপুর-১ আসন থেকে বিপুল ব্যবধানে বিজয়ী হয়ে ইতিহাস সৃষ্টি করবে বলে আমি মনে করি।

তিনি বলেন, বিএনপি জামাত রামগঞ্জবাসীকে ধোকা দিয়ে এসেছে। লুটপাট, দুর্নীতি, দুঃশাসনে রেকর্ড সৃষ্টি করেছিল। মিথ্যা আশ্বাস দিয়ে জনগণের সাথে প্রতারণা করেছে। তবে এবার জনগণ তাদের ধোকায় পা দেবে না। নির্বাচনে নৌকাকে বিজয়ী করার মধ্য দিয়ে বিএনপিকে প্রত্যাখ্যান করবে জনগণ।

জামায়াত বিএনপি ক্ষমতায় গেলে বাংলাদেশ জঙ্গি রাষ্ট্রে পরিণত হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে একটি অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ে উঠেছে। তবে জামাত বিএনপি ক্ষমতায় বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক রাষ্ট্রে পরিণত হবে। জেলায় জেলায় উগ্রবাদী জঙ্গীগোষ্ঠীর আর্বিভাব ঘটবে।

এর আগে জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রামগঞ্জের ১০টি ইউনিয়নে ব্যাপক গণসংযোগ করেছেন ড. আনোয়ার হোসেন খান। সকাল থেকে শুরু করে রাত পর্যন্ত গণসংযোগ চালিয়ে যান তিনি। এসময় তার সাথে বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী প্রাইভেট কার, মাইক্রোবাস ও মোটর সাইকেল সহ মোটর শোভাযাত্রা করেন এবং নৌকার পক্ষে ভোটে চেয়ে বিভিন্ন স্লোগান দেন।

গণসংযোগকাল আনোয়ার খান পৌর সদরের বিভিন্ন ওয়ার্ড এবং ১নং কাঞ্চনপুর, ২নং নোয়াগাঁও, ৩নং ভাদুর, ৪নং ইছাপুর, ৫ চন্ডীপুর, ৬নং লামচর, ৭নং দরবেশপুর, ৮নং করপাড়া, ৯নং ভোলাকোট এবং ১০নং ভাটরা ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় মানুষের কাছে ভোট চান। এসময় তিনি ভোটারদের হাতে ২০১৯ সালের ক্যালেন্ডার, নৌকা প্রতীকের স্টিকার ও লিফলেট তুলে দেন।

গণসংযোগকালে দেখা গেছে, বিভিন্ন এলাকার লোকজন নৌকার প্রার্থী আনোয়ার খানকে ফুল দিয়ে বরণ করেন। এসময় নৌকার প্রার্থীর সঙ্গে স্থানীয় লোকজন শুভেচ্ছা বিনিময় করতে আসলে আনোয়ার খান এগিয়ে আসেন এবং করমর্দন করেন। এ সময় তিনি স্থানীয়দের পরিবারের খোঁজ খবর নেন।

গণসংযোগে আরো অংশ নেন জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি শফিকুল ইসলাম, রামগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মনির হোসেন চৌধুরী, সামছুল হক মিজান, সোয়ায়েব হোসেন শখা, সাবেক মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বেলাল আহম্মেদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন দেওয়ান বাচ্চু, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক ও জেলা পরিষদের সদস্য সৈকত সামসু, বিআরডিবি চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান সমুন ভূঁইয়া, প্যানেল মেয়র ও পৌর যুবলীগের আহবায়ক মামুনুর রশিদ আখন্দ, যুগ্ম আহবায়ক শাখাওয়াত হোসেন রাজু, ফয়সাল পাটওয়ারি, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ফয়সাল মাল, সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান শুভ, পৌর ছাত্রলীগের আহবায়ক মিলন আটিয়া, যুগ্ম আহবায়ক অপু মিল, আশরাফ রাজু, ফজলে রাব্বি জয় প্রমুখ।

সূত্রঃ  বাংলাদেশ জার্নাল

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে