চট্টগ্রাম মহানগর গোয়েন্দা বিভাগের বিশেষ অভিযান: ০৩নারী গ্রেফতার

0
790

রাকি কুমার সেন: বন্দর নগরী চট্টগ্রামের বন্দর থানাধীন কলসী দিঘী রোড, ফেলাগাজী বাড়ি, বায়তুল রিদওয়ান মসজিদ কলোনী, পুকুরের উত্তর পাশের ০৮নং রুমে অভিযান পরিচালনা করে ০৩(তিন) মহিলা গ্রেফতারসহ বিপুল পরিমাণ জেহাদী বই উদ্ধার গ্রেফতার করেছে মহানগর গোয়েন্দা (বন্দর) বিভাগ ।

গ্রেফতারকৃত আসামী ১) জেসমিন আক্তার (২৯), পিতা-আব্দুল হাশেম, স্বামী-বেলাল হোসেন, মাতা- খাদিজা বেগম, সাং-ভেলু মিয়া, রাড়ি বাড়ী, থানা-ভোলা সদর, জেলা-ভোলা ২) শাহানারা বেগম (৩৮) পিতা-মোহাম্মদ মোশারফ হোসেন, স্বামী-মৃত মোঃ ইব্রাহীম ছোট্টু, মাতা-জাহেরা বেগম, সাং-রানী গ্রাম, মোশারফের বাড়ী, থানা-হাতিয়া, জেলা-নোয়াখালী ৩) হামিদা আক্তার (৩০), পিতা-বেলায়েত হোসেন তালুকদার, স্বামী-রহমান হাওলাদার, মাতা-মৃত ছালেহা বেগম, সাং-ইকরি, মমিন হাওলাদার বাড়ী, থানা-ভান্ডারিয়া, জেলা-পিরোজপুর, সবার বর্তমান ঠিকানা-কলসী দিঘী রোড, ফেলাগাজী বাড়ি, বায়তুল রিদওয়ান মসজিদ কলোনী, পুকুরের উত্তর পাশের্^, ০৮নং রুম, থানা-বন্দর, জেলা-চট্টগ্রাম।

বুধবার ০৫ডিসেম্বর২০১৮ তারিখ ২১:১৫ ঘটিকায় সময় জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশ এর বেশ কিছু নারী সদস্য নাশকতার পরিকল্পনার জন্য গোপন বৈঠক করছে এমন তথ্যের ভিক্তিতে চট্টগ্রাম মহানগর গোয়েন্দা বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার(ডিবি-বন্দর), জনাব এসএম মোস্তাইন হোসেন (বিপিএম) মহোদয়ের সার্বিক দিক নির্দেশনায় অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার(ডিবি-পশ্চিম) জনাব এএএম হুমায়ুন কবীর মহোদয়ের নেতৃত্বে¡ পুলিশ পরিদর্শক জনাব মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী, পুলিশ পরিদর্শক জনাব মুহাম্মদ আরিফ হোছাইন ও সঙ্গীয় এসআই(নিঃ)/ মোঃ মোমিনুল হাসান , এসআই(নিঃ)/ মোঃ মিজানুর রহমান, এসআই(নিঃ)/ মোঃ মোজাম্মেল হোসেন, এসআই(নিঃ)/ মোঃ জুয়েল চৌধুরী, এসআই(নিঃ)/ আব্দুল হালিম, এসআই(নিঃ)/ মোঃ কামরুজ্জামান সহ অভিযান পরিচালনা করে ০৩(তিন) মহিলা গ্রেফতারসহ বিপুল পরিমাণ জেহাদী বই, লিফলেট, বাইতুল মাল আদায়ের রশিদ এবং বেশ কিছু রেজিষ্ট্রার উদ্ধার গ্রেফতার করেছে মহানগর গোয়েন্দা (বন্দর) বিভাগ। এসময় আসামীদের সাথে থাকা অজ্ঞাতনামা কয়েক জন পালিয়ে যায়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত আসামীরা জানায়, তারা আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে বাধাগ্রস্থ করার উদ্দেশ্যে পরামর্শ করার জন্য বর্নিত স্থানে বৈঠক করতে ছিলো। পলাতক আসামীদের সাথে নাশকতার জন্য সংগৃহীত বিভিন্ন প্রকার বিষ্ফোরক ও আগ্নেয়াস্ত্র ছিল মর্মে ধৃত আসামীরা সাক্ষীদের উপস্থিতিতে স্বীকার করে। বর্নিত ও পলাতক আসামীগন দীর্ঘদিন যাবত অত্র এলাকায় অবস্থান করে এবং বিভিন্ন পোশাক কারখানা ও বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে চাকুরীর ছদ্মবেশে সংগঠন পরিচালনা এবং নাশকতা সহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকান্ড পরিচালিত করে আসছে।

গ্রেফতারকৃত ০৩ জন আসামী ও অজ্ঞাতনামা আসামীদের বিরুদ্ধে বন্দর থানায় নিয়মিত মামলা রুজু করা হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে