সীতাকুণ্ডে লায়ন্স ক্লাবের উদ্যোগে সহস্রাধিক রোগীকে চিকিৎসা সেবা প্রদান

0
729
সীতাকুণ্ড প্রতিনিধি: লায়ন্স ক্লাবের চিকিৎসা ক্যাম্পের উদ্বোধন করে লায়ন্স ডিস্ট্রিক ৩১৫বি-৪ এর ফাস্ট ভাইস গভর্নর লায়ন কামরুন মালেক বলেছেন, মানুষ বিধাতার প্রিয় ও অপূর্ব এক সৃষ্টি। এই মানুষের জন্য কিছু করলে বিধাতাও খুশী হন। আমরা শুধু মানুষকে নয়, বিধাতাকে খুশী করতেও লায়নিজমের পতাকা উড়াই। লায়নিজম করি।
তিনি বলেন, পৃথিবীতে সব মানুষকে সমান করে পাঠানো হয়নি। ভাগ্য বিড়ম্বিত বহু মানুষ রয়েছেন। যাদের সাহায্যের প্রয়োজন। সামর্থবান মানুষেরা যখন এসব মানুষের দিকে সহায়তার হাত বাড়ান, তখন শুধু ওই মানুষই নন, বিধাতাও খুশী হন। তিনি আজ শুক্রবার (১৬ নভেম্বর) সীতাকুণ্ড উপজেলার মছজিদ্দা এস.এ চৌধুরী ইনস্টিটিউট প্রাঙ্গনে লায়ন্স ক্লাবস্ ইন্টারন্যাশানাল, জেলা ৩১৫বি-৪,বাংলাদেশ এর অধীনে লায়ন্স ক্লাব অব চিটাগং সীতাকুণ্ড, লায়ন্স ক্লাব অব চিটাগং অগ্রণী এবং লায়ন্স ক্লাব অব চিটাগং মেট্রোপলিটন এর উদ্যোগে পরিচালিত চিকিৎসা ক্যাম্পের উদ্বোধন কালে প্রধান অতিথি  হিসাবে একথা বলেন।
লায়ন কামরুন মালেক আরো বলেন, লায়নিজম এমন একটি মন্ত যেই মন্ত্রে পৃথিবীর সেবার জগতটাই পাল্টে গেছে। বিশ্বের সবচেয়ে বড় এই সেবা সংগঠনের মাধ্যমে প্রতি সেকেন্ডেই পৃথিবীর কোথাও না কোথাও সেবা কার্যক্রম চলছে। তিনি বলেন, এক সময় বলা হতো ব্রিটিশ সামরাজ্যে সূর্য অস্ত যায়না। এখন বলা হয় লায়নিজমের সেবার বিশ্বে সূর্যের অস্ত নেই। আমরা আমাদের সেবার হাতকে সবসময় প্রসারিত রাখতে চাই। তিনি লায়ন এবং লিও ক্লাবের সদস্যদের আরো বেশি করে মানুষের সেবা করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, মানুষের সেবার মাঝে যে আনন্দ তা পৃথিবীর আর কিছুতেই নেই। লায়ন্স ক্লাব অব চিটাগং সীতাকুণ্ডের প্রেসিডেন্ট লায়ন নূরুল আবছার চৌধুরী এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, লায়ন ডিস্ট্রিক্ট ৩১৫বি-৪ এর কেবিনেট সেক্রেটারি লায়ন জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী
অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন টুরিস্ট পুলিশের এডিশনাল ডিআইজি রোটারিয়ান মোহাম্মদ মুসলিম, লায়ন্স ক্লাবস ইন্টারন্যাশনাল জেলা ৩১৫বি-৪ বাংলাদেশ এর জয়েন্ট সেক্রেটারি লায়ন মোঃ আশরাফুল আলম আরজু, গর্ভণর এডভাইজার প্রসুন কুমার বড়য়া, রিজিওয়ান চেয়ারপারর্সন হেডকোয়ার্টার জহিরুল ইসলাম এমজেএফ, রিজিওনাল চেয়ারপারর্সন হেডকোয়ার্টার লায়ন মির্জা আকবর আলী চৌধুরী এমজেএফ, লায়ন শিহাব মালেক। উপস্থিত ছিলেন লায়ন্স ক্লাব চিটাগং অগ্রণীর প্রেসিডেন্ট লায়ন কামরুল হাসান হারুন, লায়ন্স ক্লাব অব চিটাগং মেট্টোপলিটন এর প্রেসিডেন্ট লায়ন সাংবাদিক হাসান আকবর, লায়ন্স ক্লাব অব চিটাগং সীতাকুণ্ডের প্রথম সহ-সভাপতি লায়ন মোঃ গিয়াস উদ্দিন, সেক্রেটারি লায়ন মোঃ বেলাল হোসেন, ট্রেজারার লায়ন কামাল উদ্দিন ভূইয়া, জয়েন্ট সেক্রেটারী লায়ন আবুল হাসনাত, লায়ন মফিজুর রহমান সাজ্জাদ, লায়ন আলীম উল্ল্যাহ মুরাদ, লায়ন ইঞ্জিনিয়ার কামরুদ্দোজা, লায়ন্স ক্লাব অব চিটাগং লিবার্টি’র প্রেসিডেন্ট লায়ন কাজী আলী আকবর জাসেদ, লায়ন হেলেনা ইয়াছমিন, শারমিন আবছার মুক্তা, লায়ন জিয়া উদ্দিন বাবলু, লিও আরাফাত ইলাহী, লিও নাজিমুজ্জামান, লিও নূরখান, লিও ইসতিয়াক, লিও জিয়াউল হক আরিফ, লিও ই এম বাসার, লিও সালাউদ্দিন, লিও আরিফ উদ্দিন হেলাল, লিও ইসহাক, লিও আইনুল করিম ফিরোজসহ লায়ন ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
অনুষ্ঠানটি সফল করতে সার্বিক সহযোগিতা করেন লিও ক্লাব অব চিটাগং সীতাকুন্ড, লিও ক্লাব অব চিটাগং মেট্রোপলিটন এবং লিও ক্লাব অব চিটাগং অগ্রণী। লায়ন্স চক্ষু হাসপাতাল এবং বিভিন্ন চিকিৎসকদের সহায়তায় পরিচালিত দিনব্যাপী চিকিৎসা ক্যাম্পে ৩১৫ জন রোগীর চোখ পরীক্ষা করা হয়। এদের মধ্যে ৪০ জনকে অপারেশনের জন্য নির্বাচিত করা হয়। যাদেরকে লায়ন্স ক্লাবের সহায়তায় সম্পূর্ণ বিনামূল্যে চক্ষু অপারেশনের ব্যবস্থা করা হবে। এছাড়া ক্যাম্পে চার শতাধিক রোগীর ডায়াবেটিস টেস্ট এবং ব্যবস্থাপত্র প্রদান করা হয়। এদের অনেকেই জানতেনই না যে, তাদের শরীরে ডায়াবেটিস বাসা বেধেছে। ক্যাম্পে চার শতাধিক মানুষের রক্তের গ্রুপও নির্ণয় করা হয়। সীতাকুন্ডের মছজিদ্দা গ্রামে পরিচালিত এই ক্যাম্প স্থানীয়দের ব্যাপক প্রশংসা কুড়িয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে