একাত্তরের জননী সাহিত্যিক রমা চৌধুরীর জন্মবার্ষিকী উদ্যাপিত

0
868

সদ্য প্রয়াত একাত্তরের জননী সাহিত্যিক রমা চৌধুরীর ৭৯তম জন্মবার্ষিকী গতকাল ১৪ অক্টোবর উদ্যাপিত হয়েছে। নন্দনকাননের বৌদ্ধমন্দির সড়কস্থ ফুলকীর এ কে খান স্মৃতি মিলনায়তনে অনুষ্ঠানটির আয়োজন করে রমা চৌধুরীর স্মৃতি সংসদ। আবৃত্তিকার মুজাহিদুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠান আরম্ভ হয় রমা চৌধুরীর কবিতা ‘হব আমি বাংলা মায়ের চারণ’র শিল্পী অনন্দ প্রকৃতির সুর-ও কন্ঠের মাধ্যমে। এরপর স্বাগত বক্তব্য রাখেন রমা চৌধুরীর সহচর ও প্রকাশক আলাউদ্দিন খোকন। জন্ম বার্ষিকী অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেসে উপস্থিত ছিলেন অধ্যক্ষ রিতা দত্ত, কবি সাংবাদিক কামরুল হাসান বাদল, কবি জিন্নাহ চৌধুরী, চট্টগ্রাম শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক নাট্যজন সাইফুল আলম বাবু। কবি ফারহানা আনন্দময়ী। বক্তব্য রাখেন নাট্যকর্মী জাহেদুল আলম, কমরেড অমিতাভ সেন, সাংস্কৃতিক কর্মী দিলরুবা খানম, আলোক চিত্রি কমল রুদ্্র, অধ্যাপক বিচিত্রা সেন, সম্মিলিত সামাজিক সংগঠক সভাপতি এস এম স্বপন, সাধারণ সম্পাদক শামসুজ্জোহা আজাদ পলাশ। অনুষ্ঠানে রমা চৌধুরীর আত্মজৈবনিক উপন্যাস ‘একাত্তরের জননী’ থেকে পাঠ করেন আবৃত্তিকার জাভেদ হোসেন ও তৈয়বা জহির আরশি। রমা চৌধুরীর কবিতা থেকে পাঠ করেন অসিম দাশ, শ্রাবণী দাশগুপ্তা, সাইফুল আজম। অতিথির বক্তব্যে কবি কামরুল হাসান বাদল বলেন, বাঙ্গালির গর্ব করার মতো প্রধানতম মাইল ফলক ১৯৭১। যার সাথে রমা চৌধুরীর নাম অঙ্গাঁঙ্গিভাবে জড়িত। তিনি ‘একাত্তরের জননী’। রীতা দত্ত বলেন, সাধারণ জীবন যাপন অসাধারণ চিন্তা শৈলী ও সমাজ ভাবনা এই আপ্তবাক্যের অনন্য প্রতিনিধি করা রমা চৌধুরী। অনুষ্ঠান সমাপ্ত হয় আবৃত্তিকর্মী সেঁজুতি দে এর গাওয়া একটি দেশের গান এর মাধ্যমে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে