চট্টগ্রাম মহানগরীর প্রবর্তক মোড় এবং তৎসংলগ্ন এলাকায় জলাবদ্ধতা নিরসনের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন;

0
852

চট্টগ্রাম: আজ মঙ্গলবার, ৯ অক্টোবর ২০১৮ তারিখে বন্দরনগরীর জামাল খান রোডে অবস্থিত চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল চট্টগ্রাম মহানগর কমিটির সহ-সভাপতি এবং ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনালের রাজনৈতিক ফেলো মো: জসিম উদ্দিন চৌধুরী চৌধুরী চট্টগ্রামে প্রবর্তক মোড় ও তৎসংলগ্ন এলাকায় জলাবদ্ধতা নিরসনের দাবিতে একটি সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন।

সংবাদ সম্মেলনে এক লিখিত বক্তব্যে আয়োজক বলেন, “এটি প্রায় সর্বজনবিদিত যে, বর্ষার মৌসুমে চট্টগ্রাম মহানগরীর জনগণ পানির নিচে ডুবে থাকে । সামন্য বৃষ্টিতেই নগরীর অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ মোড় ‘প্রবর্তক’ এলাকা পানিতে তলিয়ে যায়। যার ফলে এলাকাটি চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়ে। নগরীর হিজড়া খাল সহ বিভিন্ন খাল ও নালার মানব অগ্রাসনে সংকোচিত হয়ে, অপর্যাপ্ত গভীরতা, খালের উপর অবৈধ ইমারত নির্মাণ, অপরিকল্পিত ড্রেনেজ সিস্টেম, জনগণের অসচেনতায় খালে প্লাস্টিক বর্জ্য ফেলা – এসব কারণে সহজেই জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয় এবং তা দীর্ঘস্থায়ী হয়। এই কারণেই প্রর্বতক মোড় সহ নগরীর বিভিন্ন এলাকা জনদূর্ভোগের শহরে পরিণত হয়। বর্ষাকালে সবচেয়ে বেশি দূভোর্গের শিকার হয় স্থানীয় স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা। প্রবর্তক মোড় পানির নিচে তলিয়ে যাওয়ার কারণে চিকিৎসা সেবা স্থবীর হয়ে পড়ে। মূমুর্ষ রোগীকে নিকট দুরত্বে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ, সি.এস.সি.আর হসপিটাল, ইপিক, ট্রিটমেন্ট-সিএসটিসি চাইল্ড কেয়ার, শেভরন সহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করতে না পারায় রোগীর মৃত্যু ঘটে। শিক্ষার্থীরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সময়মত প্রবেশ করতে পারেনা, সেইসাথে মুমূর্ষু রোগী নিয়ে এ্যামবুলেন্স, ফায়ার সার্ভিস ও অন্যান্য জরুরি সেবা পরিবহন প্রায় অচল হয়ে পড়ে। প্রবর্তক মোড় সংশ্লিষ্ঠ ব্যবসায়ীদের দোকানপাট পানিতে তলিয়ে গিয়ে বিপুল অংকের আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়। এছাড়া প্রায় সময় পথচারী জনগণ, শিক্ষার্থী জলাবদ্ধতা এলাকা পার হতে গিয়ে দূর্ঘটনার সম্মুখীন হয়। এমনকি পানির ¯্রােতে স্কুল ছাত্রের খালে পড়ে দুর্ঘটনার বিষয় বর্ষাকালে নিত্যনৈমিত্তিক-ই বলা যায়। আমরা মনে করি এইসব সমস্যা থেকে জনগণকে মুক্তি দেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষকে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা জরুরী।

এর আগে চট্ট্রগ্রামের প্রবর্তক এলাকায় জলাবদ্ধতা সমস্যা সমাধানে জনমত সংগ্রহের লক্ষ্যে আমরা গণস্বাক্ষর অভিযান করে ৫০০ জনেরও বেশি এলাকাবাসীর স্বাক্ষর সংগ্রহ করেছি। এই গণস্বাক্ষরসমৃদ্ধ আবেদনপত্র চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ.জ.ম. নাছির উদ্দীনের বরাবরে প্রদান করি, যার অনুলিপি সিডিএ চেয়ারম্যানক মহোদয়কে দেয়া হয়েছে।’’

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ১৬ নং চকবাজার ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও চকবাজার থানা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা জনাব সাইয়েদ গোলাম হায়দার মিন্টু বলেন, নগরবাসীর অসচেতনতাকে জলাবদ্ধতার অন্যতম কারন। সিটি কর্পোরেশন নানামুখি তৎপরতার মাধ্যমে নগরীর জলাবদ্ধতা নিরসনে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি জলাবদ্ধতা নিরসনে নগরবাসীর সহযোগীতা কামনা করেন। ১৫ বাগমনিরাম ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি জনাব মোঃ গিয়াস উদ্দিন বলেন, চট্টগ্রাম নগরীর জলাবদ্ধতা নিরসনে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের একটি মেগা প্রকল্প গ্রহন করা হয়েছে যাতে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন সার্বিক সহযোগীতা প্রদান করছে। মাষ্টাপ্লান প্রনয়ের মাধ্যমে নগরীর জলাবদ্ধতা নিরসনে দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা করা হয়েছে। প্রবর্তক মোড় এলাকাটিও এই প্রকল্পের আওতায় আনা হয়েছে। ইতি মধ্যেই বিশেষজ্ঞ বর্গ, প্রকল্প সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও সিডিএ’র চেয়ারম্যান এলাকাটি পরিদর্শন করেছেন। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন আগামী বর্ষার আগেই প্রবর্তক এলাকা সহ নগরীর জলাবদ্ধতা সমস্যা ৪০% সমাধান হবে।

অন্যান্য অতিতি বর্গেও মাঝে উপস্থিত ছিলেন, চকবাজার থানা বিএনপি’র সভাপতি মু্িক্তযোদ্ধা সাইফুর রহমান বাবুল, মহানগর বিএনপি’র শিল্প বিষয়ক সম্পাদক রোটারিয়ান শহীদুল ইসলাম, চকবাজার ওয়ার্ড বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক ও পুরানা উর্দু লেইন মহল্লা কমিটির সভাপতি এম এ হালিম বাবলু, ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনালের চট্টগ্রাম আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক মোঃ সদরুল আমিন, প্রোগ্রাম এসিস্ট্যান্ট নুর ই জান্নাত মুন এবং আরো গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গ।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে