গোটা শরীর ছড়িয়ে যাচ্ছে টিউমার: টাকার অভাবে চিকিৎসা হচ্ছে না শিশু সাফিনের

0
105

সাফিন হোসেন। বয়স দেড় বছর। লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার কাকিনা ইউনিয়নের রুদ্রেশ্বর এলাকার সুমন মিয়া ও সুইটি বেগমের ৩য় পুত্র। জন্মের পর থেকে সাফিনের কোমড়ের একপাশে ছোট একটি ব্রণ দেখা যায়। ওই সময় সাফিনকে ডাক্তার দেখানো হয়। তখন ডাক্তার বলেছিলেন, এ ব্রণ নিয়ে চিন্তার কোনো কারণ নেই। 

কিন্তু দিনে দিনে সেই ব্রণ এখন টিউমার হয়ে গোটা শরীর ফুলে যাচ্ছে। এখন ডাক্তার বলছেন জরুরী অপরেশন প্রয়োজন। এতে ব্যয় ৫ লক্ষ টাকা। কিন্তু দরিদ্র সুমন মিয়ার পক্ষে ৫ লক্ষ টাকা সংগ্রহ করা সম্ভব নয়। ফলে চিকিৎসার অভাবে বাড়িতেই আছেন সাফিন।
সাফিনের বাবা সুমন মিয়া বলেন, তিনি এক প্রতিষ্ঠানে মাষ্টার রোলে চাকুরী করেন। যা বেতন পান তা দিয়ে সংসারেই চলে না। কিন্তু কয়েক দিন আগে সাফিনকে নিয়ে ডাক্তারের কাছে গেলে ডাক্তার তাকে জরুরী ভিত্তিতে শেখ হাসিনা মেডিকেল ইনস্টিটিউটে নিয়ে যেতে বলেছেন। তার জরুরী অপারেশন প্রয়োজন। এতে প্রায় ৫ লক্ষ টাকা ব্যয় হবে। কিন্তু ৫ লক্ষ টাকা কোনো, ৫ হাজার টাকা সংগ্রহ করা আমার পক্ষে সম্ভব নয়। টাকার অভাবেই আমি আমার সন্তানের চিকিৎসা করতে পাচ্ছি না।
সাফিনের মা সুইটি বেগম বলেন, সাফিনের টিউমার থেকে রক্ত বের হচ্ছে। ডাক্তার বলেছেন আমার বাচ্চার জরুরী অপারেশন প্রয়োজন। তা না হলে এ টিউমার গোটা শরীরে ছড়িয়ে পড়বে। এই মুর্হুত্বে অপরেশন করা না হলে পরে ক্যান্সার হতে পারে।
স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য আব্দুস সামাদ বলেন, সুমন মিয়ার একটি ছেলে অসুস্থ। তার জরুরী ভিত্তিতে অপারেশন প্রয়োজন। কিন্তু টাকার অভাবে শিশুটির চিকিৎসা করতে পারছে না। সমাজের বিত্তবানরা যদি এগিয়ে আসে তাহলে শিশু সাফিনকে দ্রুত সুস্থ করা সম্ভব হবে।
আসাদ হোসেন রিফাত/tarunnbd24.com