লালমনিরহাটে বন্যায় পানিবন্দি ৪ হাজার মানুষ 

0
311

আসাদ হোসেন রিফাতঃ লালমনিরহাটে তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। তিস্তা নদীর পানি জেলার ৫ উপজেলার নিম্ন অঞ্চলে ঢুকে বন্যা দেখা দিয়েছে। বেশ কিছু পরিবার পানি বন্দি হয়ে পড়েছে বলে তিস্তা পাড়ের লোকজনের সাথে কথা বলে জানা গেছে। শুক্রবার সকালে তিস্তা নদীর পানি তিস্তা ব্যারাজ পয়েন্টে বিপদসীমার ২০ সেঃ মিঃ উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। এর আগে বৃহস্পতিবার রাত ১১ টার পর ওই পয়েন্টে পানি বিপদসীমার ৩০ সেঃ মিঃ উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। 

তিস্তা নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় লালমনিরহাটের পাটগ্রাম, হাতীবান্ধা, কালীগঞ্জ, আদিতমারী ও সদর উপজেলার চর অঞ্চলের বসতবাড়ি গুলোতে পানি উঠেছে। ধারনা করা হচ্ছে তিস্তার পানি ৫ উপজেলায় অন্তত ৪ হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে জেলার হাতীবান্ধা উপজেলার তিস্তা তীরবর্তী ৬ টি ইউনিয়নের অনেক এলাকায় পানি ঢুকে পড়েছে। ওই উপজেলার গড্ডিমারী ইউনিয়নের বেশ কিছু পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন এমন দাবী করেন ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিক শ্যামল।
তিস্তা ব্যারাজ’র পানি বিজ্ঞান শাখার উপ-সহকারী প্রকৌশলী ইলিয়াস আলী জানান, ভারত থেকে প্রচন্ড গতিতে পানি বাংলাদেশের দিকে ধেয়ে আসছে। তিস্তা ব্যারাজের সব গেট খুলে দিয়ে পানির চাপ নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করা হচ্ছে। আরো কি পরিমান পানি আসবে তা ধারনা করা যাচ্ছে না।
লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক আবু জাফর জানান, বন্যা পরিস্থিতি মোকাবেলায় সকল প্রকার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। প্রয়োজন হলেই ত্রাণ বিতরণ করা হবে।