২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার পরিকল্পনাকারীদের ফাঁসি চাই: খোরশেদ আলম সুজন

0
1034

আনিসুর রহমান: ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ আওয়ামী লীগ নেতাদের হত্যা প্রচেষ্টা ও গণহত্যার পরিকল্পনাকারী অভিযুক্ত তারেক জিয়া গংদের ফাঁসির দাবীতে এক বিশাল সমাবেশ আজ বিকাল ৩ টায় সংগঠনের আহবায়ক এ এস এম জাহিদ হোসেন এর সভাপতিত্বে নগরীর সিইপিজেড চত্ত্বরে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব খোরশেদ আলম সুজন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী হাসিনা মহিউদ্দিন।

সভার প্রধান অতিথি আলহাজ্ব খোরশেদ আলম সুজন বলেন, আজ সকল প্রকার সাক্ষ্য প্রমাণ, ডক্যুমেন্টারী এভিডেন্সে পরিস্কারভাবে প্রমাণ হয়েছে যে, তারেক জিয়ার প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে গ্রেনেড হামলা হয়েছে। সেই হামলার মূল লক্ষ্য জাতির জনকের কন্যা শেখ হাসিনা সহ জাতীয় নেতৃবৃন্দকে হত্যা করে দেশের মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ধারাকে ধক্ষংস করে দেওয়ার। দেশের গণতান্ত্রিক ব্যবস্থাকে ধক্ষংস করে কোলতন্ত্রের রাষ্ট্র ব্যবস্থা কায়েম করার। রাষ্ট্রীয় ক্ষমতার দন্ড থাকবে সাম্প্রদায়িক শক্তি প্রতিভূ বিএনপি’র হাতে আর বিকল্প জামাত থাকবে বিএনপি’র কোলে। এখনই সময় এই অশুভ শক্তির বিষদাঁত ভেঙে রাষ্ট্র ও গণতন্ত্র অসাম্প্রদায়িক চেতনাকে নিরাপদ করা। তাই বাংলার জনগণের এক দাবী একুশে আগস্টের গ্রেনেড হামলাকারীদের মূল নায়ক তারেক জিয়া গংদের ফাঁসি। আর কয়েক দিনের মধ্যে জাতি এক নির্বাচনী মহাউৎসবে মেতে উঠবে। জাতি-ধর্ম-বর্ণ-নির্বিশেষে সকলে এই উৎসবে শরিক হবে। কিন্তু এই উৎসবে গণতন্ত্রের ভিলেন ২১ আগস্টের গণহত্যার, গণতন্ত্র হত্যার নায়কদেরা দূরে ছুঁড়ে দিতে হবে। এই উৎসবে রক্তের ঋণ শোধ হবে একটি অসাম্প্রদায়িক শোষণহীন সমৃদ্ধশালী বাংলাদেশ বিনির্মাণ করে। যারা এই আকাক্সক্ষার বিপরীতে তাদের শিখড় উপড়ে ফেলতে হবে। তিনি বলেন, দেশবাসী আপনাদের আজ সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময়। জাতিসত্তার খুনীদের উত্তরাধিকার তারেক জিয়া ও মুফতি হান্নান চক্রকে কি এগিয়ে যেতে দেবেন শেখ হাসিনাকে হত্যার ষড়যন্ত্র বাস্তবায়ন করতে দিয়ে? নাকি তাদের থামিয়ে দেবেন, অতীতের খলনায়কদের মতো লজ্জা আর পরাজয়ের পাথর বেঁধে অতল গহক্ষরে নিক্ষেপ করে। আসুন আমরা বিভেদের হিংস্র শ্বাপদ আর হায়েনাদের পরাজয়ের সমাধিতে দাঁড়িয়ে সমবেত কণ্ঠে বলি ‘আমার সোনার বাংলা আমি তোমায় ভালোবাসি’। শত্রুর বিরুদ্ধে গড়ে তুলি ইস্পাত কঠিন ঐক্যের প্রাচীর।
সুজন বৈরী আবহাওয়া উপেক্ষা করে হাজার হাজার শ্রমিক ছাত্র যুব জনতা সমাবেশে যোগদান করায় তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। জাগ্রত ছাত্র যুব জনতা’র সদস্য সচিব রকিবুল আলম সাজ্জীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন, নগর আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মশিউর রহমান চৌধুরী, রোটারিয়ান মোঃ ইলিয়াছ, জামশেদুল আলম চৌধুরী, ইপিজেড থানা আওয়ামী লীগের আহবায়ক হাজী হারুনুর রশীদ, যুগ্ম-আহবায়ক আবু তাহের, বন্দর থানা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শাহনেওয়াজ চৌধুরী, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হাজী মোঃ ইলিয়াছ, ৩০নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি জহির আহমদ চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক ইবনে সালাউদ্দিন, ৩৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি এম.হাসান মুরাদ, সাধারণ সম্পাদক হাজী মোঃ হাসান, ৩৬নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আহবায়ক ইসকান্দর মিয়া, যুগ্ম-আহবায়ক মোর্শেদ আলী, নূর নবী চৌধুরী লিটন, ৩৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মান্নান, ৪০নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন চৌধুরী আজাদ, ৪১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোঃ সেলিম, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহবায়ক এডভোকেট এ এইচ এম জিয়াউদ্দিন, মহানগর শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল হক চৌধুরী এটলি, নগর যুবলীগের যুগ্ম-আহবায়ক মাহবুবুল হক সুমন, মহানগর সৈনিক লীগের আহবায়ক শফিউল আজম বাহার, মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মমতাজ বেগ, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা শওকত হোসাইন, ফরহান আহমেদ, মোহাম্মদ সালাউদ্দিন, খলিলুর রহমান নাহিদ, মোরশেদ আলম, এস এম আবু তাহের, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগ সদস্য সাইফুল্লাহ আনসারী, নগর যুবলীগ সদস্য আব্দুল আজিম, শামসুল আলম, নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ সদস্য নুরুল কবির, মাইনুল হক লিমন, আবদুস সালাম মাসুম, মহিলা কাউন্সিলর নিলু নাগ, আনিসুর রহমান ইমন, হাজী হাবিব শরীফ, এনামুল হক মিলন, জাহেদ আহমেদ চৌধুরী, আজিজুর রহমান আজিজ, সমীর মহাজন লিটন, স্বরূপ দত্ত রাজু, রাজিব হাসান রাজন, আশিকুন্নবী চৌধুরী, নগর ছাত্রলীগ সভাপতি ইমরান আহমেদ ইমু প্রমূখ। সমাবেশ স্থলের পাশে অভিযুক্ত আসামীদের ফাঁসির দাবীতে প্রতিকী ফাঁসির মঞ্চ নির্মান করা হয়।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে