ধর্মপাশা উপজেলার বাবুপুর গ্রামে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ,আহত ১৭

0
117

এম এইচ লিপু মজুমদার

সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলার সুখাইড় রাজাপুর উত্তর ইউনিয়নের বাবুপুর গ্রামে গতকাল শুক্রবার সকাল নয়টার দিকে দুইপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে নারী পুরুষসহ অন্তত ১৫জন আহত হয়েছেন। জমির দলিল রেজিস্ট্রী করা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে এই ঘটনা ঘটেছে বলে এলাকাবাসী জানিয়েছেন।

ধর্মপাশা থানা পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়,প্রায় চার বছর আগে উপজেলার সুখাইড় রাজাপুর উত্তর ইউনিয়নের বাবুপুর গ্রামের বাসিন্দা মজনু চৌধুরী (৫০) একই গ্রামের সহোদর দুই ভাই তাজুল ইসলাম (২৫) ও মড়ল মিয়া (৪০) এই দুইজনের কাছে ১০শতাংশ জমি বিক্রয় করেন। কিন্তু নানা অজুহাত দেখিয়ে জমিটির রেজিস্ট্রী করা নিয়ে সময় অতিবাহিত করা হচ্ছিল। বৃহস্পতিবার বিকেল অনুমান চারটার দিকে এ নিয়ে স্থানীয় বাবুপুর বাজারে মজনু চৌধুরীর সঙ্গে তাজুৃল ইসলামের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। পরে স্থানীয় লোকজন দুজনকে দুইদিকে সরিয়ে দেন। এ ঘটনার জের ধরে গতকাল শুক্রবার সকাল অনুমান নয়টার দিকে মজনু চৌধুরীর নির্দেশে তাঁর ১৫/২০জন লোক সমবেত হয়ে নৌকা নিয়ে ধারালো দা,টেটা ও লাঠিসোটা নিয়ে সজ্জিত হয়ে তাজুল ইসলাম ও মড়ল মিয়ার বাড়িতে হামলা চালান। এতে বাধা দিলে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। সংঘর্ষে মতিউর রহমান(২৫), হাফিজুর রহমান (৪০), আহাদুল্লাহ (১৮),বাছিরুল ইসলাম (১৮),কামাল মিয়া (৪৫), খাদিজা আক্তার (৩৫),ফরহাদ মিয়া (২৪),নজরুল ইসলাম (৩৬), নার্গিস আক্তার (২৬),মোশারফ হোসেন (৩৮),শামীম আহমেদ (২২)সহ অন্তত ১৭জন আহত হন।আহতদেন মধ্যে সাতজনকে ধর্মপাশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও দুইজনকে জামালগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।অন্যরা সাময়িক চিকিৎসা নিয়েছেন। এ নিয়ে মজনু চৌধুরী,মড়ল মিয়া ও তাজুল ইসলামের সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি।
ধর্মপাশা থানার এসআই ফিরোজ মিয়া বলেন,জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে দুই পক্ষের মধ্যে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে বলে শুনেছি। এ ঘটনায় অভিযোগ পেলে তদন্ত করে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply