আমার মা

4
845
সুজাতা দাস (কোলকাতা)

আমার মা
সুজাতা দাস

(মা)
বড্ড নরম
খুব শান্ত ধীরস্থির
আলতা পড়া নরম সুন্দর পা দুখানি
একটু উঁচু করে পরা লালপাড় সাদা খোলের শাড়ি
শঙ্খের মতো সুন্দর ধবধবে হাতে শুধুই শাঁখা আর পলা
ছোট্ট একটা লাল সিদুঁরের টিপ্,মাথার আলুথালু চুল একটু
উঁচু করে হাত-খোঁপা করা যা মাঝে মাঝে ভেঙে পরছে পিঠের উপর—
পরিশ্রমের ভারে বিন্দু-বিন্দু জমে ওঠা ঘাম কপালে মুখে ছড়িয়ে পড়ে,সুন্দরতাকে চতুর্গুন বাড়িয়ে তুলেছে;মাঝে-মাঝে কাজের ফাঁকে হাতের উল্টো পিঠ দিয়ে ঘাম মোছার কারনে সিদুঁরের টিপটা একটু লেপ্টে গেছ;যা ক্লান্ত অবসন্ন চেহারাটাকে মোহময়ী করে তুলেছে–
কানের ছোট্ট দুলটাতে রোদ পরে ঝিলিক দিচ্ছে,নিরাভরণ শরীরে ঐ একটু সোনার আভাস হিরের দ্যুতি কে হার মানাচ্ছে অবহেলে—
এই আমার মা,সব মায়েরাই বোধহয় এমন–
অপরূপা,তুলনা চলে না অন্য কোনও আলাদা
সম্পর্কের সাথে–
(মা)মুখ বুঁজে সহ্য করার অঙ্গীকারে আবদ্ধ এক
মানুষ,যে নিজে না খেয়ে সন্তানকে খাইয়ে খুশি
হয় অনায়াসে—
(মা)কষ্টটাকে নিজের কাছে রেখে আনন্দ বিলাতে
পারে সন্তানদের মাঝে,নিঃশব্দ হাসি মুখের আড়ালে
কখনও ধরা পরেনা কোনও কষ্ট—
(মা)সন্তান কে গড়ে তুলতে জীবনকে বাজি লাগাতে
পারে অনায়াসে,শত কষ্টকে হেলায় হারায়; সন্তান কে
মানুষের মত মানুষ করতে—
(মা)জীবনের সমস্ত দুঃখ ভুলিয়ে দিতে পারেন একটু
ঠান্ডা হাতের নরম স্পর্শে,জীবনকে জুড়িয়ে দেন তপ্ত
দাবদাহের অনল থেকে—
(মা)একটা অনায়াসে বয়ে চলা জীবন,যা ছিল ছন্দ-হীন
মরুভূমির তপ্ত বালির ওপর,অমসৃণতায় হেঁটে যাওয়া
সম্পূর্ণ রিক্ত বেদুইন—-
(মা)আমার মা এই পৃথিবীটা দেখেছিলেন একদম নিঃসঙ্গ
একা,চারপাশের আনন্দ-উচ্ছল পৃথিবীটা ছিল তার জীবনের একটা অদেখা অংশ…
(মা)এই শব্দটা বোঝার আগেই হারিয়ে ফেলেছি অনেক
অবহেলায় অনেক অনাদরে,আসলে সব মায়েরাই এমন
অবহেলা-অনাদরেই হারিয়ে যায়…

বুধবার, 29/8/18, 1425 সন।

4 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে