রাজারহাটে ওসি’র উদ্যােগে থানায় সুন্দরের আশীর্বাদ

0
161

এ.এস.লিমন,রাজারহাট
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রূপকল্প ২০২১ এবং রূপকল্প ২০৪১ প্রণয়নের মাধ্যমে উন্নত বাংলাদেশের পথ নকশা তৈরি করে জাতিকে যে লক্ষ্য পূরণে ধাবিত করেছেন। তারই নেতৃত্বে কুড়িগ্রামের রাজারহাট থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ রাজু সরকার হাজারো সীমাবদ্ধতাকে অতিক্রম করে উন্নত ও মডেল রাজারহাট থানা হিসেবে তিনি রাজারহাট থানার সামগ্রিক উন্নয়নে নিবিষ্ট মনে কাজ করে যাচ্ছেন।

তিনি রাজারহাট উপজেলায় যোগদান করার পরই রাজারহাট থানার উন্নয়নের অগ্রযাত্রা চলছে দ্রুত গতিতে। সামাজিক এবং মানব উন্নয়নের অনেক সূচকেই এখন এগিয়ে যাচ্ছে। রাজারহাট থানায় সর্বক্ষেত্রেই উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে। রাজারহাট থানার চিত্র দিন দিন পাল্টে যাচ্ছে। এছাড়া থানা চত্বরে সর্বত্র মনিটরিং ব্যবস্থা করেছেন তিনি।

রাজারহাট থানা এখন সৌন্দর্যের এক অপরূপ লীলাভূমি। দৃষ্টিনন্দন পুকুরটি এখন মাছে ভরা, দিগন্তজোড়া সবুজ বৃক্ষ আর অল্প কিছু শোভা বর্ধনকারী গাছ। অনুপম সৌন্দর্যে ভরপুর কোলাহলমুক্ত পরিবেশ। আর রাস্তার পাশ দিয়ে রাজারহাট উপজেলা পরিষদ প্রবেশ পথে থানার দেয়ালে নতুন রঙের আলপনার সৌন্দর্য যেকোনো মানুষ রাজারহাট থানাকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত। থানার ভিতরে বেশ কয়েকটি ছায়া শীতল ইট সিমেন্টের তৈরি বসার বক্স আছে সেই সিটগুলোতে অতি শ্রীঘ্রই টাইচ লাগানোর প্রসূতি দেন তিনি এ প্রতিবেদকে।

শিশুরাই দেশ ও জাতির ভবিষ্যৎ। তাদের সুন্দরভাবে বেড়ে ওঠার জন্য প্রয়োজন উপর্যুক্ত পরিবেশ ও মানসিক বিকাশের সুযোগ। এ লক্ষ্যকে সামনে রেখে উপজেলায় তিনি অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের বাল্য বিয়ে ও বিয়ের প্রাপ্ত বয়স না হয়ে প্রেমিক-প্রমিকা পলাতক এর কুফল সর্ম্পকে পরামর্শ দিচ্ছেন এবং তাদেরকে সচেতন করে তুলার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

এ ছাড়া তিনি উপজেলার প্রত্যেক কম্পিউটার মেমোরি লোডের দোকান গুলোতে পূর্ণগ্রাফি আইন সর্ম্পকে সর্তকতা করে দিয়েছেন। কোন কম্পিউটার দোকানে কোন প্রকার পূর্ণগ্রাফি পাওয়া গেলে তাদেরকে আইনে আওতায় নিয়ে এসে জেল জরিমানা করা হবে বলে তিনি জানান।

বর্তমান রাজারহাট থানায় ঘুষ-দুর্নীতিমুক্ত পরিবেশে সেবা পাচ্ছে উপজেলাবাসী। পুলিশ সর্ম্পকে সাধারণ মানুষের ধ্যান ধারণা পাল্টে দিয়েছেন ওসি রাজু সরকার। রাজারহাট উপজেলার গরীব মানুষের সুখ দুঃখের সঙ্গী তিনি তার কাছে অভিযোগ নিয়ে গিয়ে নিরুপায় হয়ে ফিরে এসেছেন এমন অভিযোগ কারী রাজারহাটে বিরল। মানুষের পারিবারিক, সামাজিক থেকে শুরু করে এমন কোন কাজ নেই যে তিনি করে দিচ্ছেন না। উপজেলাবাসীর অভিযোগ নেওয়ার জন্য রাজারহাট থানায় তিনি ২৪ ঘন্টায় ১জন করে ডিউটি অফিসার রেখে দিয়েছেন। প্রতিদিনই নতুন কোন অভিযোগ পেলে তা সঙ্গে সঙ্গে তদন্ত করার জন্য তিনি অফিসারদেরকে ঘটনা স্থলে পাঠিয়ে দিচ্ছেন এবং ঘটনার সত্যতা বের করে তিনি থানায় মামলা রুজু করেন। কারণ ঘটনার সঙ্গে জরিত না থেকে কেউ আসামী হয়ে হয়রানীর শিকাড় হোক সেদিকে তিনি বেশ সর্তকতার সাথে কাজ করে যাচ্ছেন।

এ ছাড়া তিনি রাজারহাটে মাদকমুক্ত, বাল্য বিবাহ, ইভটিজিং, সন্ত্রাস,জঙ্গীদমনে নিয়েছেন নানামুখী পদক্ষেপ ছাএ, শিক্ষক , অভিভাবকদের জঙ্গীবাদের কুফল সর্ম্পকে করেছেন সচেতেনতা। জনপ্রতিনিধিদের ও উপজেলা প্রশাসনের সাথে সম্বন্নয় করে এনেছেন জবাবদিহিতা । সাফল্য স্বরুপ অল্প কয়েকদিনে পেয়েছেন রাজারহাট উপজেলাবাসীর ভালবাসা এবং সাধারণ মানুষদেরকে পুলিশের সোর্স হিসেবে গড়ে তুলেছেন ওসি মোঃ রাজু সরকার।

রাজারহাট থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ রাজু সরকার বলেন,মানুষের জন্য কিছু করতে পারলেই আমার স্বার্থকতা । কতুটুকু করতে পারবো বা পেরেছি তার মূল্যায়ন আমি করতে পারি নাই । বর্তমান সরকারের ভিষন কে জনগনের দোড় গড়ায় সততার সহিত পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা করছি মাত্র ।

Leave a Reply