চট্টগ্রামের জেনারেল হাসপাতালে করোনা রোগীদের জন্য বসানো হলো অক্সিজেন প্ল্যান্ট। যা আগামী সপ্তাহের মধ্যে চালু হবে।

0
133

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে স্থাপন করা হয়েছে অক্সিজেন প্ল্যান্ট, যা কোভিট 19 রোগীদের জন্য খুশির সংবাদ বয়ে আনে। এই অক্সিজেন প্ল্যান্টটি তৈরি করতে প্রায় সাড়ে ১৭ লাখ টাকা ব্যয় করা হয়েছে। সব কারিগরি বিষয় পরীক্ষা শেষে আগামী সপ্তাহে চালু হচ্ছে এই অক্সিজেন প্ল্যান্টটি।

এই বিষয়টি নিশ্চিত করেন, জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. অসীম কুমার নাথ তিনি বলেন,২০ কিলোলিটার ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন অক্সিজেনের এই প্ল্যান্টের নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। আমাদের রেড বিল্ডিংয়ে চাইলে এখনই সংযোগ দেওয়া যায়। কিন্তু পুরো হাসপাতালে একযোগে সংযোগ চালু করতে সপ্তাহখানেক সময় নিতে হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, সরকার জেনারেল হাসপাতালে আরও কিছু উন্নয়নমূলক কাজ করছে। সেই কাজগুলো চলতি সপ্তাহে শেষ হয়ে যাবে। এরপর পুরো হাসপাতালেই এই প্ল্যান্ট থেকে অক্সিজেন সরবরাহ করা হবে।

জানা গেছে, ২৫০ শয্যার চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে আইসিইউসহ বর্তমানে করোনার জন্য ব্যবহার করা হচ্ছে ১৪০ শয্যা। পুরো হাসপাতালটি করোনা চিকিৎসায় বিশেষায়িত হওয়ার বিষয়টি এখন প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২২ জুন স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের উপ সচিব মো. আমিনুর রহমান স্বাক্ষরিত এক আদেশে এই প্ল্যান্ট নির্মাণের কার্যাদেশ দেওয়া হয়।স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের ওই কার্যাদেশে উল্লেখ করা হয়, ১০ কিলোলিটার অক্সিজেন সাপ্লাইয়ের উপযুক্ত প্ল্যান্ট স্থাপন করা হচ্ছে। তবে প্ল্যান্টের সক্ষমতা অবশ্যই ২০ কিলোলিটারের হতে হবে যাতে প্রয়োজন অনুযায়ী আরও বেশী অক্সিজেন উৎপাদন করা যায়।

এদিকে অক্সিজেন সংকটে জেনারেল হাসপাতালসহ চট্টগ্রামের অন্যান্য হাসপাতালে যখন প্রতিনিয়ত করোনা এবং শ্বাসকষ্টে রোগী মারা যাচ্ছিল তখন এগিয়ে আসে এস আলম গ্রুপ। এস আলম গ্রুপের চেয়ারম্যান সাইফুল আলম মাসুদের উদ্যোগে জেনারেল হাসপাতাল, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, মা ও শিশু হাসপাতালে নিউজিল্যান্ডের তৈরি এয়ারবু হাই ফ্লো ন্যাসাল ক্যানুলা দেওয়া হয়। একই সাথে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে প্রায় ৮৫ লাখ টাকা ব্যয়ে সেন্ট্রাল অক্সিজেন সংযোগ স্থাপন করে দেয় এস আলম গ্রুপ।

Leave a Reply