ওজন মেপে সংসার চালাই বৃদ্ধ মতিউর রহমান

0
136

হাসান মাহমুদ,টাঙ্গাইল ঃটাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার গোহালিয়া বাড়ী ইউনিয়নের বাস স্টেশন গুলোতে প্রায়ই দেখা যেত এক বৃদ্ধ ব্যক্তি। বিভিন্ন স্থানে ভিক্ষা না করে মানুষের ওজন মেপে জীবিকা নির্বাহ করেন ৭০ বছরের বৃদ্ধ মতিউর রহমান। একটি ওজন মাপার যন্ত্র নিয়ে এ বৃদ্ধকে প্রায়ই বসে থাকতে দেখা যায় বাস স্টেশন, রেলওয়ে স্টেশন ও বিভিন্ন অলিগলিতে।

(১১জুলাই) শুক্রবার বিকালে তার দেখা মিললো গোহালিয়াবাড়ী ইউনিয়নে গড়িলাবাড়ী নদীর পাড়ে । প্রতিদিনের মতো ওজন মাপার যন্ত্র নিয়ে বসে আছেন বৃদ্ধ মতিউর রহমান । পথচারীদের ডেকে বলছেন, বাবাজি ওজন মেপে যান। ওই সময়ের মধ্যে ১০০-১২০ টাকা উপার্জন হয়েছে। মতিউর রহমান চেয়ে অনেক কম বয়সি ব্যক্তিরা বসে আছেন ভিক্ষার থলে নিয়ে। অথচ ৭০ বছরের ওই খেটে খাওয়া বৃদ্ধ বেছে নিয়েছেন ওজন মাপার পেশা।

তার গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলার সিরাজকান্দী এলাকায়। ৩ মেয়ে ১ ছেলের জনক মতিউর রহমান। শত কষ্টে ৩ মেয়েকে বিয়ে দিয়েছে। একমাত্র ছেলেকে নিয়ে অনেক বড় আশা ছিল। দুঃখের বিষয় হলো এসএসসি পরিক্ষা দেওয়ার পর একমাত্র ছেলে মানসিকভাবে মাথা নষ্ট হয়ে যায়।

সংসারের হাল ধরারমত আর কেউ নাই। এ জন্য এ বয়সে বেছে নিয়েছেন ওজন মাপার পেশা। এ বিষয়ে বৃদ্ধ মতিউর রহমান বলেন, আমার এই বয়সে অন্য কোনো কাজ করার শক্তি বা সামর্থ্য নেই। তাই এক হাজার ৫০০ টাকা দিয়ে ওজন মাপার যন্ত্রটি কিনেছি। প্রতিদিন দুই থেকে আড়াইশ টাকা উপার্জন করি। কোন রকমের সংসার চলে যায়। বয়স্ক ভাতা ও অন্যন্য সাহায্য সহযোগিতার জন্য সরকারের প্রতি আকুতি জানান বৃদ্ধ মতিউর রহমান।

Leave a Reply