আকাংক্ষা

0
806

জাফর ইকবাল

(একটা গল্প না একটা কবিতা না হয় অন্য একটা কিছু)

ঠান্ডা হাতটি তুলে নিলে যবে
তোমার উষ্ণ কোমল হাতে,
কি এক অনাবিল প্রশান্তি এসে
জড়ালো আমায় তাতে।

রাস্তার কোণে আঁধো আলো
আঁধো ছায়ায়,
নিম্ন স্বরে কত কি বলাবলি
জড়ানো এক মহামায়ায়।

ঠান্ডা কনকনে শীতের রাতে
পাশ দিয়ে যায় আসে-
কত অচেনা জন-কত চেনা’রাও
হয়তবা তাতে আছে।

এই মহা মিলনের ছোঁয়ায়
নেই সময় চোখ ফেরাবার,
অজস্র রাত যদি এমনি করে
পেতাম শুধু ভালবাসার।

কি এক সুখানুভূতি তাতে
পৃথিবীর সব গুলি সুখের চাইতে,
চিত্তের ব্যাকুলতায় অস্থির
এতটুকুই বারবার ফিরে পেতে।

তবু কি হায় ছন্দের পতন
কাটিয়ে সুর ধরা যায়?
এটাই বুঝি প্রেম মানেনা বয়স,
জাত, কূল তায়।

সেখানেও দেখেছি ততটাই অনুভূতি
যতটা রয়েছে আমার,
বাঁধি বাঁধি করে সে ঘর খানা,
বাঁধা হয়নি যে আর।

দিন যায় বছর ফুরায়
আকাংক্ষারা তবু জেগে রয়,
দুজনাই বাহু বাঁড়িয়েই আছি
বাহু মিলন তবু নাহি হয়।

দুই তীরে বাস করেই
হয়ত জনম হয়ে যাবে শেষ,
সেদিনও ভালবাসার অমোঘ স্রোতে
ভেসে যাবে দেহাবশেষ।

সেদিনও বন্ধু গুনগুন করেই
ভেসে যাব ভাটির টানে,
ভুলা কি যায়? না যাবে
যত যা আসে মধ্য খানে?

বাঁধিতে পারিনি এই হাত
যে হাত আজ আমার হাতে,
মনের ঘরে যে তোমার করেছি বসত
তৃপ্ত আমি তাতে।

করিনা ভয় আসুক মরণ
মরিতে চাই তোমায় দেখে,
প্রাণ বায়ুটা আমায় যেনগো ছাড়ে
তোমার বুকে থেকে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে