মেট্রোরেল আরো দৃশ্যমান করার সুপারিশ সংসদীয় কমিটির

0
717

মেট্রোরেল প্রকল্পের কার্যক্রম আরো দৃশ্যমান করার সুপারিশ করেছে সংসদীয় কমিটি। একইসঙ্গে অগ্রাধিকার প্রকল্প হিসাবে মেট্রোরেলের কাজ নির্ধারিত সময়ে মধ্যে সম্পন্ন করার সুপারিশ করা হয়। এছাড়া যানজট নিরসনে রাজধানীকে পাশ কাটিয়ে ঢাকার পূর্ব দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের লাঙ্গলবন্ধ পয়েন্ট থেকে পশ্চিমে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের বালিয়াপুর পর্যন্ত বাইপাস এলিভেটেডওয়ে নিমার্ণ প্রকল্পের কাজ অতিদ্রুত শুরু করার সুপারিশ করে কমিটি।

সংসদ ভবনে আজ অনুষ্ঠিত সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ৩১তম বৈঠকে এসব সুপারিশ করা হয়।
বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন কমিটি সভাপতি মো. একাব্বর হোসেন। সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, রমেশ চন্দ্র সেন, এ. কে. এম. এ আউয়াল (সাইদুর রহমান), রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক, নাজমুল হক প্রধান, মো. মনিরুল ইসলাম, মিসেস লুৎফুন নেছা এবং নাজিম উদ্দিন আহমেদ বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন।

সংসদের গণসংযোগ বিভাগ জানায়, ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের বলিয়াপুর হতে নিমতলী-কেরানীগঞ্জ-ফতুল্লা বন্দর হয়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের লাঙ্গলবন্দ পয়েন্ট পর্যন্ত বাইপাস সড়ক নিমার্ণে ‘ঢাকা ইস্ট-ওয়েস্ট এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে’প্রকল্পের অগ্রগতি নিয়ে বৈঠকে বিস্তারিত আলোচনা হয়।
মন্ত্রণালয় জানায়, মালয়েশিয়া সরকারের একটি প্রতিনিধি দল এরইমধ্যে সমীক্ষা যাচাই করেছে। এই এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণ প্রায় ১২ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে হবে। এছাড়া মিরপুরের সড়ক গবেষণাগারের সরকারি কোয়ার্টারে অবৈধভাবে সাবলেট প্রদান করায় উক্ত বাসাগুলিতে ব্যবহৃত বিদ্যুৎ-গাস ও পানির বিল আদায় করে সংযোগ বিচ্ছিন্নকরণ করে দেওয়ার সুপারিশ করা হয়। এজন্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিবকে প্রধান করে একটি সাব-কমিটির গঠনের সুপারিশ করা হয়।
মন্ত্রণালয়ের সেতু বিভাগের সিনিয়র সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব মো. নজরুল ইসলাম, বিআরটিসি ও বিআরটিএ’র চেয়ারম্যান, সড়ক ও জনপথের অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলীসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

বিডি প্রতিদিন

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে