পঞ্চগড়ে নিহত ২

0
111

সুকুমার বাবু দাস,পঞ্চগড় প্রতিনিধি: পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলায় আল আমিন (৩২) ও বোদা উপজেলার সবুর আলীর (৫৩) নামে দুই ব্যক্তি পৃথক ঘটনায় নিহত হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছে আরোও চার জন।
একটি গত মঙ্গলবার (১৯ মে) রাতে জেলার আটোয়ারী উপজেলার ধামোর ইউনিয়নের পুরাতন আটোয়ারী গ্রামে।
অপরটি বুধবার (২০ মে) বিকেলে বোদা উপজেলার কাজলদিঘী কালিয়াগঞ্জ ইউনিয়নের কায়েতপাড়া এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে।
নিহত আল আমিন আটোয়ারী গ্রামের শামসুল হকের পুত্র ও সবুর আলী বোদা উপজেলার মৃত কেরামত আলী পুত্র।
আহতরা হলেন, আটোয়ারীর জয়নুল, ইসমাইল, নুর ইসলাম ও সাইরুল ইসলাম।
ধামোর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম দুলাল নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ইসমাইল হোসেনের একটি গাছের ডাল আল আমিনের পাট ক্ষেতের ক্ষতি করছে।
আল আমিন মঙ্গলবার দুপুরে ওই গাছটির ডাল কেটে ইসমাইল হোসেনকে দিয়ে দেয়। এতে ইসমাইল হোসেন ক্ষুব্ধ হয়ে আল আমিনের সাথে তর্কবিতর্ক শুরু হয়। এক পযার্য়ে উভয় পক্ষের মধ্যে মারপিট শুরু হয়।
এতে পাঁচজন আহত হয়। গুরুতর আহত আল আমিনকে প্রথমে আটোয়ারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আল আমিনের মৃত্যু হয়।
আটোয়ারী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. ইজারউদ্দিন জানান, তুচ্ছ ঘটনায় উভয়পক্ষের মধ্যে মারপিটের ঘটনা ঘটেছে। তবে এখন পর্যন্ত কেউ কোন অভিযোগ দেননি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
কাজলদীঘি কালিয়াগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলাল উদ্দিন আলাল খুনের বিষয় নিশ্চিত করে বলেন, বাড়ির পাশে মরিচ ক্ষেতে ছাগল প্রবেশ করে মরিচ গাছ খাওয়ায় বড় ভাই সোনা মিয়ার সঙ্গে ছোট ভাই সবুর আলীর মধ্যে তর্কবিতর্ক শুরু হয়। একপযার্য়ে উভয়ের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এতে ছোট ভাই সবুর আলী অজ্ঞান হয়ে পড়ে। পরে গ্রাম্য চিকিৎসক তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করলে তাকে মৃত ঘোষণা করে।
বোদা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবু হায়দার মো. আশরাফুজ্জামান মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মৃতদেহ মর্গে পাঠানো হচ্ছে। মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

Leave a Reply