আটোয়ারীতে ভিজিডি চাল বিতরণে নগদ অর্থ গ্রহণের অভিযোগ-

0
120

আটোয়ারী পঞ্চগড়, সংবাদদাতা
পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলার ১ নং মির্জাপুর ইউনিয়ন পরিষদে প্রতিমাসে ভিজিডি চাল বিতরণের সময় কার্ডপ্রতি১০/-টাকা হারে নগদ গ্রহণ করার অভিযোগ উঠেছে।

গত রোববার (১৭ মে) সরোজমিনে গিয়ে আটোয়ারী ১ নং মির্জাপুর ইউনিয়ন পরিষদে ভিজিডি চাল বিতরণের প্রত্যেক কার্ডে ১০ /-টাকা হারে বিষয়টি নিশ্চিত করা গেছে।

ইউপি সচিব চেয়ার-টেবিল নিয়ে বসে চাল বিতরণের সময় প্রতিটি ভিজিডি কার্ডধারী নিকট হতে ১০/- টাকা করে নগদ গ্রহণ করেছেন।

ইউপি সচিব বলেন, মির্জাপুর ইউনিয়নে ৩৭৪
ভিজিডি কার্ডধারী রয়েছে।

চেয়ারম্যানের নির্দেশে প্রতিটি ভিজিডি সুবিধা ধরির নিকট হতে নগদ ১০/-টাকা হারে নেওয়া হচ্ছে।

আটোয়ারী ১ নং মির্জাপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর আলী বলেন,

এলএসডি (খাদ্য গুদাম) হতে চান নেওয়ার সময় প্রতি টন চালে ৮০০/- করে টাকা দিতে হয়।

এ টাকা আমি কোথায় পাব। প্রতিটি ভিজিডি কার্ডধারী নিকট হতে১০/- হারে নেওয়া হচ্ছে।
এক প্রশ্নের জবাবে চেয়ারম্যান বলেন, গুদাম হতে চাল বের করতে কুলিদের একটা খরচ আছে।

কুলি খরচটা সংশ্লিষ্ট চেয়ারম্যান সাহেবেরাই দেন।

তবে পরে এটা ভাউচার করে টাকাটা তুলতে পারবেন না।

তাই বলে ভিজিডি কার্ড ধারীদের কাছ থেকে টাকা নিতে পারেন না।

ভিজিডি সুবিধাভোগী লক্ষীপুর গ্রামের আজিম উদ্দিনের স্ত্রী আনোয়ারা বলেন, প্রতিমাসে চান নিতে এসে বস্তার দাম বাবদ ১০/-টাকা করে দিতে হয়।

প্রতি কার্ডে প্রতি মাসে ৩০ কেজি এক বস্তা করে চাল পাই।

এই পর্যন্ত ১৪ মাস চাল তুলছি। এ ব্যাপারে আটোয়ারী উপজেলা নির্বাহি অফিসার শারমিন সুলতানা বলেন, এ ব্যাপারে আমার কাছে কোনো অভিযোগ আসেনি।

ভিজিডি কার্ডধারী কাছ থেকে বস্তা বাবদ অর্থ চেয়ারম্যান অর্থ গ্রহণ করতে পারে না। বিষয়টি আমি খুতিয়ে দেখব।

Leave a Reply