কাল থেকে চাঁদপুর জেলায় সকল যানবাহন চলাচল বন্ধ

0
125

চাঁদপুর জেলায় আগামীকাল থেকে সিএনজি ও ব্যাটারিচালিত অটোরিক্সাসহ সকল যান্ত্রিক যানবাহন বন্ধ থাকার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। শনিবার করোনাভাইরাস জনিত পরিস্থিতি মোকাবেলায় চাঁদপুর জেলায় গৃহীত কার্যক্রম তদারকি উপলক্ষে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধিদের সাথে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় এ নির্দেশনা দেন ত্রাণ সচিব।

হাজীগঞ্জ, শাহরাস্তি, ফরিদগঞ্জ উপজেলায় ত্রাণ বিতরণে কোন সমন্বয় নেই এবং অনিয়ম হচ্ছে-এমন তথ্য আছে জানিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ত্রাণকার্য তদারকিতে চাঁদপুরের দায়িত্বপ্রাপ্ত দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব শাহ কামাল। সেই সাথে উপজেলার করোনা ত্রাণের পরিবহন খরচ ইউপি চেয়ারম্যানরা এখনো না পাওয়ায় শাহরাস্তি ইউএনও শিরিন আক্তারকে ভৎসনা করেন তিনি। এ সময় তিনি শাহরাস্তি ইউএনওর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ারও নির্দেশ দেন জেলা প্রশাসককে।

এসব তথ্য জানিয়েছেন সভায় উপস্থিত থাকা চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এইচএম আহসান উল্লাহ।
চাঁদপুর প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদকের দেয়া তথ্যে উল্লেখ করা হয়, সভায় সচিব শাহ কামাল বলেন, চাঁদপুরে উপজেলা ভিত্তিক করোনা দুর্যোগে ত্রাণের পরিবহন খরচ এখনো অনেক ইউপি চেয়ারম্যানগন পান নি। ইউএনওরা কেনো এখনো এসব খরচ নিজের হাতে রাখছেন? এ জন্য শাহরাস্তি ইউএনওকে খুবই ভর্ৎসনা করেন সচিব। সচিব ইউএনও শাহরাস্তিকে বলেন ‘তুমি কি আমাকে আইন শিখাইবা? ডিসি এবং এডিসিকে নির্দেশ দিয়েছেন শাহরাস্তি ইউএনওর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য।
সচিব বলেন, হাজীগঞ্জ, শাহরাস্তি, ফরিদগঞ্জে ত্রাণ বিতরণে কোনো সমন্বয় নেই এবং অনিয়ম হচ্ছে- এই তথ্য সচিবের কাছে আছে।
সচিব ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন চাঁদপুরের কথিত লকডাউনের অবস্থা দেখে। তিনি সভায় আসতে নিকটবর্তী মুন্সীরহাট বাজারের অবস্থা দেখে ক্ষোভের কথা জানান।
পরবর্তীতে চাঁদপুর প্রেসক্লাব সেক্রেটারী আরও জানান, চাঁদপুর শহরে কোন সিএনজি অটোরিক্সা, অটোবাইক ও ব্যাটারিচালিত রিক্সা চলাচল পুরোপুরি বন্ধ থাকবে। তাদেরকে ত্রাণ দেয়া হবে। এছাড়া আইনশৃঙ্খলায় সন্তোষ এবং ত্রাণ বিতরণে কোন অনিয়ম না হওয়ায়ও সন্তোষ প্রকাশ করেন ত্রাণ সচিব।
সভায় উপস্থিত থাকা চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ জামান বলেন, লকডাউন একটু শিথিলতার মধ্যে চলছে বলে এটিকে আরও কড়াকড়ি করার নির্দেশ দেন সচিব স্যার। জেলায় ৩১ মে পর্যন্ত

Leave a Reply