ধর্মপাশায় ফসলরক্ষা বাঁধের এক পিআইসির সভাপতির বিরুদ্ধে এক লাখ ১৬হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

0
78

লিপু মজুমদার ধর্মপাশা (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি
সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলার গুরমার বর্ধিতাংশ হাওরের ফসলরক্ষা বাঁধের একটি প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির (পিআইসির) সভাপতি লেলিন সরকারের বিরুদ্ধে এক লাখ ১৬হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় সুবিচার চেয়ে গত সোমবার বিকেলে ওই প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সদস্য সচিব লিটন তালুকদার এ নিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনওর) কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন।
ইউএনওর কাছে পিআইসির সদস্য সচিবের দেওয়া লিখিত অভিযোগ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে,উপজেলার গুরমার বর্ধিতাংশ হাওরে ফসলরক্ষা বাঁধে তিনটি প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি রয়েছে। এর মধ্যে উপজেলার বংশীকুণ্ডা দক্ষিণ ইউনিয়নের নিশ্চিন্ত গ্রামের সামনে একটি প্রকল্প রয়েছে। এই প্রকল্প কাজের জন্য বরাদ্দ নির্ধারণ ছিল ১০ লাখ ৩৩হাজার টাকা। প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি হলেন লেলিন সরকার ও সদস্য সচিব হলেন লিটন তালুকদার। গত ৫ মে প্রকল্প বাস্তবায় কমিটির সভাপতি লেলিন সরকার ও সদস্য সচিব লিটন তালকুদার এই দুজনে মিলে ধর্মপাশ সোনালী ব্যাংকে এসে প্রকল্প কাজের বরাদ্দের তৃতীয় কিস্তির এক লাখ ১৬ হাজার টাকা উত্তোলন করেন। টাকা উত্তোলন করে পুরো টাকাটাই কৌশলে সভাপতির কাছে রেখে দিয়ে তিনি তা আত্মসাত করেছেন প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সদস্য সচিব লিটন তালুকদার বলেন, আমাদের প্রকল্প কাজের সভাপতি লেলিন সরকার কাজের শুরুতেই কমিটির কারও সঙ্গে তিনি কোনোরকম পরামর্শ না করে তাঁর ইচ্ছে মতো কাজ করেছেন। প্রকল্প কাজের শুরু থেকেই তিনি বিভিন্ন ভূয়া খাত দেখিয়ে প্রকল্পের টাকা নয়ছয় করেছেন। গত মঙ্গলবার (৫মে) আমাকে নিয়ে তিনি ধর্মপাশা সোনালী ব্যাংক থেকে তৃতীয় কিস্তির বাবদ এক লাখ ১৬ হাজার টাকার উত্তোলন করেন। পরে কৌশলে তিনি তাঁর কছে পুরো টাকাাটা রেখে দিয়ে তিনি তা আত্মসাত করেছেন। আমি এই কাজে বেশ কিছু টাকা৷ ঋণ করেছি।
পাওনাদারদের যন্ত্রনায় আমি রাতে ভালো করে ঘুমাতে পারছিনা ।টাকা আত্মসাতের ঘটনায় ইডএনও স্যারের কাছে আমি একটি লিখিত অভিযোগ করেছি।
পিআইসির সভাপতি লেলিন সরকার বলেন, টাকা আত্মসাত করার অভিযোগটি সঠিক নয়। সেই টাকাটা দিয়ে প্রকল্প কাজের পাওনাদারদের ঋণ পরিশোধ করেছি।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো.মুনতাসির বলেন,এ সংক্রান্ত লিখিত অভিযোগ আমি পেয়েছি।
তদন্ত করে এ ব্যাপাারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।#

Leave a Reply