বিবাহ বার্ষিকী উদযাপনের টাকা সরকারি ত্রাণ তহবিলে দিলেন ডা. ডি সি রায়

0
64

মোঃ মঈন উদ্দীন চিশতী, দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ
করোনা কালে নিজের বিবাহবার্ষিকী পালনে যে অর্থ ব্যয় হত সেই অর্থ করোনাভাইরাসে কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের জন্য সরকারি ত্রাণ তহবিলে দিলেন ডা. দুলাল চন্দ্র রায় (ডা. ডি সি রায়)। দিনাজপুর শহরের মানুষ সাধারণত যাকে চেনেন ডায়াবেটিক চিকিৎসক ডা. ডি সি রায় হিসেবে। রুগীদের কাছে তার জনপ্রিয়তা একজন ডাক্তারের চেয়ে্ও বেশি একজন ভালোমনের মানুষ হিসেবে। দেশের এই করোনা সংকট কালেও তিনি চেষ্টা করছেন ডায়াবেটিস রোগীদের সাধ্যমতো চিকিৎসা সেবা প্রদান করতে। এরই ধারাবহিকতায় তিনি তৈরী করলেন এক অনণ্য উদাহরণ। নিজের বিবাহ বার্ষিকী উদযাপনের টাকা দান করলেন দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের ত্রাণ কার্যক্রমে।
আজ রবিবার দুপুরে ডা. ডি সি রায় দিনাজপুরে জেলা প্রশাসক মো: মাহমুদুল আলম এর হাতে তুলে দেন তার বিবাহ বার্ষিকীতে খরচের ১০ হাজার ১ টাকা।

এসময় ডা. ডি সি রায় বলেন, প্রতি বছর বিবাহ বার্ষিকীর এইদিনটিতে পরিবার ও আত্নীদের সাথে নিয়ে ঘটা করে পালন করা হয়। বিশ্বব্যাপী করোনা সংকটের কারণে এ বছর সেরকম কোন আয়োজন থাকছে না। পরিবারের সদস্যরা সিদ্ধান্ত নেই, এবছর এই টাকা করোনা সংকটে কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের জন্য ব্যায় করা হবে। যেহেতু দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক অত্যন্ত আন্তরিক ভাবে এই সংকটময় মূহুর্তে অসহায় মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। আমি আনন্দিত তার হতে এই আর্থিক সহায়তা প্রদান করতে পেরে।

দিনাজিপুরের জেলা প্রশাসক মো: মাহমুদুল আলম বলেন, আমরা বিভিন্ন সময়ে জন্মদিন, বিবাহ বার্ষিকী সহ অন্যান্য সামাজিক অনুষ্ঠানে প্রচুর অর্থ ব্যায় করে থাকি। দেশের এই সংকটময় মূহুর্তে ডা. ডি সি রায় এই আর্থিক সহায়তা প্রদান করে উদাহরণ তৈরী করলেন। তাকে দেখে সমাজের সামর্থবানরা দুস্থদের সহায়তায় এগিয়ে আসবেন বলে আমি মনে করি।

ডা. ডি সি রায় দিনাজপুর ডায়াবেটিস ও স্বাস্থ্যসেবা হাসপাতালে দীঘ ১৫ বছর যাবৎ অত্যন্ত সুনামের সহিত ডায়াবেটিস রোগীদের চিকিৎসাসেবা প্রদান করে আসছেন। এর পাশাপাশি তিনি গত ১২ বৎসর যাবত প্রতি মাসের প্রথম বৃহস্পতিবার বীরগঞ্জ উপজেলায় তার নিজ বাসভবনে এলাকার দুঃস্থ ও অসহায় রোগীদের বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ডায়াবেটিস রোগীদের বিনামূল্যে ইনসুলিন প্রদান করে আসছেন।

Leave a Reply