লকডাউনে ক্রেতা নেই, ১ কোটি লিটার ‘বিয়ার’ ড্রেনে ফেলে দিচ্ছে ফ্রান্স

0
74
অনলাইন ডেস্ক:

একশ’, দুইশ’ কিংবা এক-দুই লাখ লিটার নয়, একেবারে ১ কোটি লিটার ফেলে দিতে হচ্ছে ফ্রান্সের ‘বিয়ার’ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে, যা দিয়ে অলিম্পিক গেমসের সুইমিংপুলের আকৃতির চারটি পুল ভরে ফেলা যেত।

বুধবার ফ্রান্সের বিয়ার উৎপাদনকারীদের সংগঠনের পক্ষ থেকে এমনটাই জানানো হয়েছে।

মহামারী করোনাভাইরাসের লকডাউনের কারণে বিয়ার বিক্রি করতে পারেননি তারা। তিন মাসের মাথায় সেগুলোর মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে যায়। সে কারণে ফেলে দিতে হচ্ছে। তাতে কয়েকশ’ মিলিয়ন ডলার ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন উৎপাদনকারীরা।

ফ্রান্সের বিয়ার উৎপাদনকারী সংগঠনের প্রধান ম্যাক্সিমে কোস্তিলহেস জানিয়েছেন, ‘এগুলো হোপি বিয়ার। এগুলো যখন অনেকদিন রাখা হয়, বিশেষ করে দুই-তিন মাস, তখন এটার স্বাদ ও গুণাগুণ নষ্ট হয়ে যায়। এটার ঘ্রাণ থাকে না। ঐতিহ্যগতভাবে এই বিয়ারগুলো পাস্তুরিত করা হয় না। সে কারণে দ্রুত নষ্ট হয়।’

চাহিদা অনুযায়ী এই বিয়ারগুলো মার্চে উৎপাদন করা হয়েছিল। লকডাউন না হলে এগুলো বিভিন্ন রেস্টুরেন্ট, পর্যটন কেন্দ্র, ফ্রান্সের বিভিন্ন উৎসবে পান করা হতো। কিন্তু লকডাউনের কারণে সবকিছু বন্ধ হয়ে যাওয়ায় অর্ডার ক্যান্সেল হয়ে যায়। বিয়ারগুলো বাক্সবন্দি হয়েই পড়ে থাকে। সেভাবেই মেয়াদোত্তীর্ণ হয়ে নষ্ট হয়ে যায়।

এর ফলে মদের জন্য বিখ্যাত ফ্রান্সের ৩০০ উৎপাদনকারী ক্ষতির মুখে পড়েছেন। যারা ফ্রান্সের ৯৮ শতাংশ বিয়ার উৎপাদন করে থাকেন। সূত্র : এএফপি

বিডি প্রতিদিন/

Leave a Reply