দিনাজপুরে মাদকাসক্ত বাবাকে জেলা প্রশাসকের হাতে তুলে দিলেন ছেলে ও স্ত্রী

0
555

মোঃ মঈন উদ্দীন চিশতী, দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ
দিনাজপুর জেলার সদর উপজেলায় মাদকাসক্ত পিতাকে জেলা প্রশাসকের (ডিসি) হাতে তুলে দিয়েছেন নিজের ছেলে ও স্ত্রী। পরে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে মাদকাসক্ত ওই ব্যক্তিকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়।

রবিবার (৩মে) দুপুর ৩টায় দিনাজপুর সদর উপজেলার শহরের মহারাজার মোড় কুমারপাড়ায় এই ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হয়।

মাদকাসক্ত পিতা হলেন ওই এলাকার মৃত সুখদেব রায়ের ছেলে বৈদ্যনাথ পাল (৫২)। তিনি একজন ইলেকট্রিক মিস্ত্রি।

এসময় ছেলে দীপক পাল জানান, ‘আমার বাবা প্রতিদিন মাদক সেবন করে আসে আমাদের সবার উপর অমানুষিক নির্যাতন করে। অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। আমরা অনেক চেষ্টার পরেও আমার বাবাকে ভালো করতে পারিনি। আজকে (রবিবার) বাধ্য হয়েই দিনাজপুর ডিসি স্যারকে ফোন করে আমার বাবার বিষয়ে বিস্তারিত বলি। তিনি বিকালে এসে আমার বাবাকে মাদকাসক্ত অবস্থায় পেয়ে ৬ মাসের জেল দেন। আমাদের কষ্ট হলেও আমার বাবা যেনো ভালো হয় এজন্যই আমরা এই কাজ করেছি।’

দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক (ডিসি) মো. মাহমুদুল আলম জানান, মাদকাসক্ত বৈদ্যনাথ পালের ছেলে দীপক পাল বাধ্য হয়ে আমাকে ফোন দিয়ে জানায় যে, তার বাবা দিনে ২ থেকে ৩ বার মাদক সেবন করে। পরিবারের পক্ষ থেকে অনেকবার মাদক সেবনে বাঁধা করা হলেও তিনি কথা শুনেননি। মাদক সেবন করে এসে স্ত্রী, ছেলে ও মেয়েকে মারধর করে।

জেলা প্রশাসক আরও জানান, বৈদ্যনাথ পাল ইলেকট্রিক মিস্ত্রির কাজ করে যে আয় হয় তার সম্পূর্ণ টাকা মাদক সেবন করে। আজ রোববার দুপুর ৩টায় তার ছেলে দীপক পাল আমাকে ফোন করে তার বাবাকে জেলে দেয়ার জন্য অনুরোধ করেন। পরে জেলা প্রশাসন কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট হরে কৃষ্ণ অধিকারী ২০১৮ সালের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ৪২ ধারার ১ উপধারায় ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডের আদেশ প্রদান করেন। পরে তাকে জেল কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে