‘মেশিন নয়, মানুষকে গুরুত্ব দিতে হবে’ । তারুণ্য বিডি ২৪ ডটকম

19
1149

তথ্য প্রযুক্তি মানুষের সর্বনাশ করে ফেলবে- এমন মন্তব্য করে শান্তিতে নোবেলজয়ী প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূস বলেছেন, প্রযুক্তির মেশিন নয় মানুষকে গুরুত্ব দিতে হবে।

ভারতের বেঙ্গালুরুতে ৮ম সামাজিক ব্যবসা দিবসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

ইউনূস বলেন, আমরা বলছি প্রযুক্তি আমাদের মহা উপকার করছে। কিন্তু এর ভাল-মন্দ উভয় দিক আছে। কোনদিকে নিয়ে যাবো সেটা আমাদের সিদ্ধান্ত নিতে হবে। নয়তো এই শতাব্দীতে প্রযুক্তি মানুষের মহা সর্বনাশ করে ফেলবে।

বাংলাদেশের এই অর্থনীতিবিদ সামাজিক ব্যবসার প্রসঙ্গে প্রযুক্তির অকল্যাণের বিষয়টি তুলে ধরে বলেন, মুনাফার জন্য এখন মানুষের বদলে সবজায়গায় টেকনোলজির ব্যবহার হচ্ছে। যিনি মুনাফা করছেন তার জন্য এটা খুব লোভনীয় জিনিস। মানুষকে সরিয়ে দিয়ে তার জায়গায় মেশিন বসছে। তার উৎপাদন খরচ কমছে। এটা শুধু বাংলাদেশ-ভারতের বিষয় নয় সারাবিশ্বে এটা হচ্ছে।

সামাজিক ব্যবসার এই উদ্যোক্তা বলেন, এখন ব্যাংক চালাতে চাও ওটা মেশিন, টিভি চালাতে চাও ওখানেও মেশিন, মেশিন সাংবাদিক সাংবাদিকতায় পুরস্কার পাচ্ছে, মেশিন গল্প লেখক সাহিত্যে পুরস্কার পাচ্ছে।

তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, তাহলে যাদের আমরা চাকরির জন্য নিয়ে আসলাম সেই মানুষরা যাবে কোথায়? কর্মহীন মানুষের জন্য সরকারিভাবে ভাতার ব্যবস্থা করার বিষয়ে প্রশ্ন তুল প্রফেসর ইউনূস বলেন, তাহলে কি আমরা ভিক্ষা করার জন্য জন্ম নিলাম? প্রচলিত অর্থ ব্যবস্থায় মুনাফার পেছনে না ছুটে মানুষের কল্যাণে কাজ করার জন্য এখন বিশ্বব্যাপী সামাজিক ব্যবসা ছড়িয়ে দেওয়া সবচেয়ে জরুরি বলে নিজের জন্মদিনে হলভর্তি তরুণ প্রজন্মের সামনে তুলে ধরেন সামাজিক ব্যবসার প্রবক্তা।

এছাড়া সম্মেলনে মূল বক্তব্য পেশ করবেন ড্যানোন-এর বৈশ্বিক প্রধান নির্বাহী ইমানুয়েল ফেইবার, নারায়ণ হৃদয়ালয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রখ্যাত চিকিৎসক ডা. দেবী প্রসাদ শেঠি। বেঙ্গালুরুর ইনফোসিস ইলেকট্রনিক সিটি ক্যাম্পাসে আয়োজিত এটি ভারতে প্রথম সামাজিক ব্যবসা দিবস। ইতিপূর্বে সাতটি সামাজিক ব্যবসা দিবসই অনুষ্ঠিত হয়েছে ঢাকায়। ইউনূস সেন্টার আয়োজিত সামাজিক ব্যবসার এই বার্ষিক অনুষ্ঠানটিতে বিশ্ব জুড়ে সামাজিক ব্যবসার উদ্যোক্তা ও পরিচালনাকারী, শিক্ষাবিদ ও গবেষক, ছাত্র এবং সামাজিক ব্যবসায়ে উৎসাহী ব্যক্তিগণ সামাজিক ব্যবসা নিয়ে আলোচনা করতে সমবেত হন।
সামাজিক ব্যবসা দিবস ২০১৮-এর বিষয়বস্তু হচ্ছে ‘একটি তিন শূন্যের পৃথিবী: শূন্য দারিদ্র, শূন্য বেকারত্ব ও শূন্য নীট কার্বন নিঃসরণ’। প্রফেসর ইউনূসের নতুন গ্রন্থ A World of Three Zeros -এ উল্লে­খিত একটি দারিদ্র, বেকারত্ব ও পরিবেশ-ঝুঁকি মুক্ত বিশ্বের রূপকল্পের ভিত্তিতে প্রণীত হয়েছে এ বছরের সামাজিক ব্যবসা দিবসের বিষয়বস্তু। উলে­খ্য, প্রফেসর ইউনূসের এই তিন শূন্যের পৃথিবীর রূপকল্প বাস্তবায়নে বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ৪০ বছর ধরে কাজ চলছে।
দুইদিনব্যাপী এই অনুষ্ঠানে ৪২টি দেশ থেকে ১,২০০-র বেশী প্রতিনিধি সামাজিক ব্যবসা দিবসে অংশগ্রহণের জন্য এরই মধ্যে নিবন্ধন করেছেন। সম্মেলনের বিভিন্ন সেশনে বক্তৃতা দেবেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, বিশেষজ্ঞ এবং নেতৃস্থানীয় সামাজিক ব্যবসা উদ্যোক্তা ও পরিচালনাকারীগণ।

বিডি-প্রতিদিন

19 মন্তব্য

  1. Hi there would you mind stating which blog platform you’re working
    with? I’m planning to start my own blog soon but I’m having a difficult time choosing between BlogEngine/Wordpress/B2evolution and Drupal.
    The reason I ask is because your layout seems different then most blogs and I’m looking for something unique.
    P.S Apologies for being off-topic but I had to ask! http://antiibioticsland.com/Augmentin.htm

  2. Today, I went to the beach with my kids. I found a sea shell and gave it to my 4
    year old daughter and said “You can hear the ocean if you put this to your ear.” She placed the
    shell to her ear and screamed. There was a hermit crab
    inside and it pinched her ear. She never wants
    to go back! LoL I know this is completely off
    topic but I had to tell someone! http://herreramedical.org/chloroquine

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে