ফুলছড়িতে সেচ নালা বন্ধ করেদেয়ায় ২০ একর জমিতে বোরো ধানচাষ অনিশ্চিত

0
618

গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার উদাখালী ইউনিয়নের পশ্চিম উদাখালী গ্রামে প্রতিপক্ষের লোকজন অগভীর নলকূপের সেচ নালা (ড্রেন) বন্ধ করে দেয়ায় তাদের জমিতে সেচ দিতে পারছে না কতিপয় কৃষক। ফলে ওই স্থানে প্রায় ২০ একর জমিতে বোরো চাষ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।
সংশিষ্ট কৃষকরা এ পরিস্থিতিতে প্রতিকার চেয়ে ফুলছড়ি উপজেলা নির্বাহী
অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন। তারা জানান, প্রায় ১৫ বছর ধরে
স্থানীয় জাহিদুল ইসলামের অগভীর নলকূপ হতে পানি নিয়ে পশ্চিম উদাখালী ও
চুনিয়াকান্দি গ্রামের প্রায় ২০ একর তারা জমিতে সেচ দিয়ে আমন ও
বোরো ধান চাষ করে আসছিলেন।

গত ১৫ জানুয়ারি সংশিষ্ট এলাকার মতিয়ার রহমান ও তার লোকজন দীর্ঘদিন ধরে ব্যবহৃত ওই সেচ নালাটি হঠাৎ করে মাটি দিয়ে ভরাট করে বন্ধ করে দেয়। এতে সংশিষ্ট ভুক্তভোগী কৃষকসহ গ্রামের লোকজন তাদের নিষেধ করলেও তা গায়ে না মেখে মতিয়ার রহমান সেচ নালা বন্ধের কাজ অব্যাহত রাখে। ফলে চলতি বোরো মৌসুমে প্রায় ২০ একর জমিতে পানি সেচের অভাবে বোরো ধান চাষে অনিশ্চয়তা চলছে।

স্থানীয় কৃষক খায়রুল ইসলাম বলেন, প্রশাসনের হস্তক্ষেপে সেচ নালাটি পুনরায়
চালু করা না গেলে আমরা জমিগুলোতে বোরো ধান লাগাতে পারবো না। ফলে
আমরা প্রায় ৩৫ জন কৃষক আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়বো। ফুলছড়ি
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবু রায়হান দোলন বলেন, এ সংক্রান্ত
একটি অভিযোগ পেয়েছি। দ্রুত তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।
স্বজন ইসলাম গাইবান্ধা

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে