গতকাল ট্রেনে কাটা পড়ে সর্বশেষ এক বৃদ্ধার মৃত্যু, ৩ বছরে চাঁদপুর কোর্ট স্টেশন এলাকায় ২৬ জনের মৃত্যু। তারুণ্য বিডি ২৪ ডটকম

0
631

চাঁদপুর শহরের প্রাণকেন্দ্র কোর্ট স্টেশন এলাকায় ট্রেনের নিচে কাটা পড়ে বদরুননেছা (৮৫) নামক এক বৃদ্ধার করুণ মৃত্যু হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ৯টায় গেইট ঘরের নিকটে। গতকাল শনিবারসহ ৩ বছরে এ স্টেশন এলাকায় রেলওয়ে থানার রেকর্ড অনুযায়ী ২৬ জন যাত্রী তাদের প্রাণ হারিয়েছে।

বৃদ্ধার স্বামীর নাম মৃত মোঃ আবদুল হামিদ দিদার। চাঁদপুর শহরের পুরাতন আদালত পাড়ার পৌর হোল্ডিং নং ৬৪-এর বাসিন্দা ও মালিক। চাঁদপুর রেলওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সারোয়ার আলমের নির্দেশে রেলওয়ে থানার এএসআই মোঃ আবু হানিফ বৃদ্ধার মৃতদেহ উদ্ধার করে রেলওয়ে থানায় নিয়ে আসেন। এ ব্যাপারে রেলওয়ে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা নং ১, তারিখ : ৯/৬/১৮। ঘটনার পর পর বৃদ্ধার আত্মীয় স্বজন খবর পেয়ে রেলওয়ে থানায় যোগাযোগ করেন। চাঁদপুর জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের অনুমতিক্রমে শনিবার রাতে লাশটি ময়না তদন্ত ছাড়া তার আত্মীয় স্বজনের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

জানা য়ায, চাঁদপুর শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত রেলওয়ে কোর্ট স্টেশন এলাকায় রেললাইনের ২ পাশে অসংখ্য অবৈধ দোকানপাট গড়ে উঠে মিনি বাজারে পরিণত হয়েছে। এসব দোকানের কারণে সাধারণ যাত্রীরা কোর্ট স্টেশনে নামতে গিয়ে মারাত্মক ঝুঁকি নিতে হচ্ছে প্রতিদিন। এতে করে বিগত দিনে রেলওয়ে থানার রের্কড অনুযায়ী এ স্টেশন এলাকায় ট্রেনে উঠতে গিয়ে ও নামতে গিয়ে ২৫ জন যাত্রী তাদের প্রাণ হারিয়েছে। গতকাল শনিবার চাঁদপুর-কুমিল্লার মধ্যে চলাচলকারী কমিউটার (ডেম্যু) ট্রেন চাঁদপুর কোর্ট স্টেশন এসে থামে। এ সময় রেললাইনের ২ পাশে অসংখ্য দোকানপাটের কারণে ট্রেন থেকে নেমে বৃদ্ধা মহিলা বদরুননেছা (৮৫) লাইন পার হওয়ার সময় তার শরীরে পরিহিত বোরকাসহ পেঁচিয়ে রেললাইনে পড়ে যান। এ সময় লাইনে পা আটকিয়ে ট্রেনের চাকার নিচে তার একটি পা কাটা যায় এবং মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে ঘটনাস্থলে মারা যান বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান।

এ ব্যাপারে রেলওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সারোয়ার আলমের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, বৃদ্ধ মহিলা বোরকা পরিহিত ছিলেন। মহিলার নিজের অসতর্কতার কারণে ও কানে ট্রেনের আওয়াজ শুনতে পারেননি বিধায় ট্রেনের নিচে কাটা পড়েন।

সুত্র: চাঁদপুর কন্ঠ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে