তাহিরপুরে কর্তব্যরত চিকিৎসক ও নৈশ প্রহরীকে মারধরের প্রতিবাদে কর্মবিরতি ও মানববন্ধন অনু্িষ্টতকামাল হোসেন, সুনামগঞ্জ থেকে

0
796

তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্তব্যরত চিকিৎসক ও নৈশ প্রহরীকে স্থানীয় সন্ত্রাসীরা অর্তকিত হামলা চালিয়ে গুরত্বর আহত করার প্রতিবাদে কর্মবিরতি, মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্টিত হয়েছে। গতকাল বুধবার সকালে তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স প্রাঙ্গনে ঘটনার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়ে মানববন্ধন কর্মসূচী ও সকাল ১০টা থেকে ১২টা পর্যন্ত বহিঃবিভাগে কর্মবিরতি পালন করেন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীগন।
ঘন্টা ব্যাপী মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন, তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডাঃ মৃত্যুঞ্জয় রায়, ডাঃ সুমন বর্মন, ডাঃ বেলায়েত হোসেন রুমি, সিনিয়র স্টাফ নার্স সুমনী আক্তার, মিজানুর রহমান, আজাদুর রহমান, টিটু বর্মন, তাপস চন্দ্র বর্মণ, সম্রাট রায়, রুবেলসহ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা কর্মচারীগন।
পুলিশ ও হাসপাতাল সুত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার রাতে পুর্ব শত্রতার জের ধরে উপজেলার উত্তর বড়দল ইউনিয়নের ভ্রাহ্মনগাও গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে নুরুল আমিনকে মারধর করে আহত করে প্রতিপক্ষের লোকজন। পরে রাতে তাকে চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় নুরুল আমিনের প্রতি পক্ষের লোকজন হাসপাতালে এসে নুরুল আমিনের উপর আবারো হামলা করে। এসময় প্রথমে হাসপাতালের নৈশ প্রহরী নাঈম চৌধুরীর তাদের বাধা দিলে তার উপর এলোপাতারী হামলা করে সন্ত্রাসীরা। এসময় হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার ফয়েজ আহমেদ নূরী তাদের বাধা দিতে গেলে সন্ত্রাসীরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকেও গুরত্বর আহত করে। বর্তমানে ফয়েজ আহমদ নুরী ও নাঈম চৌধুরী তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ইউএইচএফপিও ডাঃ মো. ইকবাল হোসেন বলেন, হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার ফয়েজ আহমেদ নূরী সন্ত্রাসী হামলায় আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
তাহিরপুর থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আতিকুর রহমান বলেন, এঘটনায় উপজেলার উত্তর বড়দল ইউনিয়নের ভ্রাহ্মনগাও গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে নুরুল আমিন বাদী হয়ে ১০/১২ জনের নাম উল্যেখ করে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। আসামীদের দ্রত প্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

 

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে