ছাতক চন্দ্রনাথ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়কে কলেজে উন্নীত করা হবে; মুহিবুর রহমান মানিক এমপি

0
692

জামরুল ইসলাম রেজা, ছাতক থেকেঃ স্বাস্থ্য ও সরকারী প্রতিষ্ঠান সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির অন্যতম সদস্য, মুহিবুর রহমান মানিক এমপি বলেছেন, ২০৪১ সালের মধ্যে এ দেশকে একটি সুখী-সমৃদ্ধ উন্নত দেশে পরিনত করতে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। শেখ হাসিনা সরকার ইতিমধ্যেই শত বছরের কর্মপরিকল্পনা হাতে নিয়ে ঘোষিত ভিশন ২০২১ ও ২০৪১ বাস্তবায়নে সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ককে ৬ লেনে উন্নীত করার পরিকল্পনা হাতে নেয়া হয়েছে। ৬ লেনের এ মহাসড়ককে সুনামগঞ্জ পর্যন্ত সম্প্রসারন করার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে সুপারিশ করা হয়েছে। সুনামগঞ্জবাসীর এ প্রত্যাশা অবশ্যই পুরন হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকলে দেশের সার্বিক উন্নয়ন সাধিত হয় তা এখন সর্বজন স্বীকৃত। তিনি বলেন, শিক্ষা বান্ধব সরকারের হাত ধরেই দেশের প্রতিটি উপজেলায় একটি করে কলেজ ও হাইস্কুল সরকারীকরণ হয়েছে। ১৮৫৭ সালে প্রতিষ্ঠিত চন্দ্রনাথ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়কে স্কুল এন্ড কলেজে পরিনত করতে তার সব ধরনের প্রচেষ্ঠা অব্যাহত থাকার কথা উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, এ বিদ্যালয়ে ১০ কোটি টাকা ব্যয়ে নতুন ভবন নির্মাণ করা হবে। নারী শিক্ষার ক্ষেত্রে অবদান রাখা চন্দ্রনাথ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ফলাফলে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখতে পারলে সরকারীকরণ করার বিষয়টি বেশীদিন অপেক্ষা করতে হবেনা। সোমবার দুপুরে স্কুল প্রাঙ্গনে তাকে দেয়া এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত ও প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব জয়নাল মিয়া চৌধুরীর সভাপতিত্বে এবং শিক্ষার্থী ফাহারিয়া জান্নাত ইভা ও সোহানা সিনথী রীমার যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সংবর্ধনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গোলাম কবির, সহকারী কমিশনার(ভুমি) তাপস শীল, ছাতক পৌরসভার প্রতিষ্ঠাকালীন চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল ওয়াহিদ মজনু, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক সৈয়দ আহমদ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আবু সাদাত লাহিন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লিপি বেগম, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা পুলিন চন্দ্র রায়, অধ্যক্ষ মঈন উদ্দিন আহমদ, ছাতক প্রেসক্লাবের সভাপতি সৈয়দ হারুন-অর রশীদ, প্রধান শিক্ষক মঈনূল হুসেন চৌধুরী। বক্তব্য রাখেন, বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য হাজী সামছুল ইসলাম, পিটিএ সহ সভাপতি হাজী আবুল হাসান প্রমুখ। সভার স্বাগত বক্তব্য রাখেন, বিদ্যালয়ের পুধান শিক্ষক কুতুব উদ্দিন। সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন শিক্ষার্থী মাহিয়া তাহসিন তানিশা ও গীতা পাঠ করেন শ্রুতি সরকার। সভায় প্রধান অতিথির উদ্দেশ্যে মানপত্র পাঠ করেন সানজিদা ইসলাম। এসময় প্রাক্তন অধ্যাপক হরিদাস রায়, এড. পীযুষ ভট্টাচার্য্য, ইউপি চেয়ারম্যান বিল্লাল আহমদ, বিদ্যালয়ের দাতা সদস্য হাজী ইসহাক আলী, পরিচালনা কমিটির সদস্য হাজী সালেহ আহমদ, সৈয়দ জাহের হোসেন লাহিন, হাজী সামছুল ইসলাম, গৌরী রানী দাস, হাজী ছালিক মিয়া চৌধুরী, শাহানারা বেগম, দিপক রঞ্জন দাস, রীনা বেগম, পিটিএ কমিটির এখলাছ খান, ছালেক মিয়া, হাসান তানভির, ছগির আহমদ, স্বপ্না বেগম, লিলি দেব, সমশের আলী, হাজী বাবুল মিয়া, শিক্ষাবিদ হাজী মখলিছুর রহমান মুকুল, আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল জলিল আজাদ, মোশাহিদ আলী, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আফজাল আবেদীন আবুল, আফতাব উদ্দিন, আব্দুল আওয়াল, মাসুক মিয়া, বাবুল রায়, মাফিজ আলী, ব্যবসায়ী মহন্ত রায়, বাবুল পাল, সামছু মিয়া, রহমত আলী, সামছুদ্দিন মিয়া, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা কৃপেশ চন্দ, সাবেক পৌর কমিশনার আফতাব মিয়া, জেলা বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন নেতা শওকত আলী জামিল, আসাদুজ্জামান, যুবলীগ নেতা আবু হানিফা সায়মন, বিশ্বজিত ঘোষ, ছাত্রলীগ নেতা শিপলু আহমদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। সংবর্ধনা উপলক্ষে ছাতক শহরে বেশকটি তোরন নির্মাণ করা হয়। অভিভাবক মহল ও শিক্ষার্থীদের মাঝে পরিলক্ষিত হয় ব্যপক উৎসাহ- উদ্দীপনা। বিদ্যালয়ের সু-সজ্জিত গালর্সগাইড এমপি মানিককে গার্ড অব অনার প্রদান করে। অনুষ্ঠানের শেষে ছিল মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে