সুনামগঞ্জে চাঁদাবাজদের মারধরে মোটরসাইকে চালক আহত

0
625

কামাল হোসেন:  সুনামগঞ্জের চাঁদাবাজদের চাহিদা মত চাঁদার টাকা দিতে অপারগতা শিকার করলে

এক মোটরসাইকে চালককে মারধর করাসহ তার মোটরসাইকে ভাঙ্গচুর করার অভিযোগ
পাওয়া গেছে। এ ঘটনাটি ঘটেছে ৫ সেপ্টেম্ভর রোজ বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৪
টার সময় সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার আব্দুর জহুর সেতুর পশ্চিম পাড়ে। পরে থানা
পুলিশ ও স্থানীয় লোকজনের সহযোগীতার ভাঙ্গচুর করা মোটরসাইকেল ও চালক
হাবিবুরকে চাঁদাজাবদের হাত থেকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রাথমিক
চিকাৎসার জন্য সুনামগঞ্জ সদও হাসপাতালে ভর্তী করে। অহত মোটরসাইকে চালকের
নাম হাবিবুর রহমান(২৪), সে জেলার তাহিরপুর উপজেলার উত্তর বাদাঘাট
ইউনিয়নের বাদাঘাট গ্রামের আশু মিয়ার ছেলে। এ ব্যাপারে আহত মোটরসাইকে চালক
হাবিবুর রহমান বাদী হয়ে চাঁদাবাজ রেলিম মিয়া(৩০) এর নাম উল্লেখ্য এবং
অজ্ঞাতনামা আরও ৫/৬ জনকে আসামী করে গত ৬ সেপ্টেম্বর সুনামগঞ্জ সদর মডেল
থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-৮। মামলা সূত্রে জানাযায়,
সুনামগঞ্জ জেলা সদরের সাথে সবকটি উপজেলার সড়ক যোগাযোগ না থাকায় বেশ
কয়েকটি উপজেলার জনসাধারণের জেলা সদরে যাতায়াতের একমাত্র মাধ্যম হচ্ছে
ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেল। যা সুনামগঞ্জ টু তাহিরপুর, বিশ^ম্ভরপুর রাস্তায়
ভাড়ায় মোটরসাইকেল চালিয়ে দুই যুগেরও অধিক সময় ধরে হাজার হাজার মোটরসাইকেল
চালকের পরিবার পরিজন নিয়ে জীবিকা নির্বাহ করে আসছে। কিন্তু হঠাৎ করেই
র্দীঘদিন যাবৎ সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার কুতুরপুর গ্রামের মৃত শফিক মিয়া
চৌধুরীর ছেলে চাদাঁবাজ রেলিম মিয়াসহ আরও ৫/৬ জন সন্ত্রাসী গ্রæপ
সুনামগঞ্জ আব্দুর জহুর সেতুর পশ্চিম পাশে যাত্রী উঠা নামার স্থানে
মোটরসাইকেল চালকদের কাছে প্রতিদিন ১০০ টাকা করে চাঁদা দাবি করাসহ তাদের
মারধরে হুমকি দিয়ে আসছে। এমকি তাদের চাহিদা মত প্রতি মোটরসাইকেল বাবত
প্রতিদিন ১০০ টাকা করে না দিলে
সুনামগঞ্জ-বিশ^ম্ভরপুর,সুনামগঞ্জ-তাহিরপুর,সুনামগঞ্জ-সাচনা রোডে
মোটরসাইকেল চালাতে দিবেনা র্মমে বেশ কিছুদিন যাবৎ হুমকি দিয়ে আসছে ওই
চাদাঁবাজ চক্রটি। এরই ধারবাহিকতায় বিগত ৫ সেপ্টেম্বর তাহিরপুর থেকে
যাত্রী উঠিয়ে মোটরসাইকে চালক হাবিবুর রহমান সুনামগঞ্জ আব্দুর জহুর সেতুর
পশ্চিম পাড়ে আসা মাত্রই তার মোটরসাইকেল থামিয়ে চাঁদাবাজ রেলিম মিয়াসহ ৫/৬
জনের চাদাঁবাজ গ্রæপ তাকে ১০০ টাকা চাঁদা দিতে বলে। পরে চালক হাবিবুর
তাদেরকে কিসের টাকা দিবে বললেই এসময় চাঁদাজাদের হাতে থাকা লোহার রড,
কাঠের রোল ও বাঁেশর টুকরা দিয়ে বেধরক মারধর করে। এবং তার মোটরসাইকেটি
ভাঙ্গচুর করে মোটরসাইকেলটি নিয়ে যায়। এসময় রাস্তায় থাকা লোকজন ও
মোটরসাইরকল চালকরা চালক হাবিবুরকে উদ্ধার করতে এগিয়ে আসলে চাঁদাবাজ
চক্রটি তাদেরকেও মারধর করে। পরে স্থানীয় লোকজন বিষয়টি থানা পুলিশ ও ডিবি
পুলিশকে মোবাইল ফোনে অবহিত করলে তাৎক্ষনিক পুলিশ ঘটনার স্থলে গিয়ে চালক
হাবিবুর ও তার মোটরসাইকেল উদ্ধার করে। এব্যাপারে সুষ্ঠু তদন্ত পূর্বক
প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর র্উধতন র্কতৃপক্ষের
আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছে সকল মোটরসাইকে চালক গন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে