বিশ্বকবি লহ প্রণাম

0
867
সাহা শোমী

বিশ্বকবি লহ প্রণাম

,*****************

সাহা শোমি (কোলকাতা)

কবি শ্রেষ্ঠ কবি গুরু প্রণাম তোমারে, সশ্রদ্ধ সহস্র প্রণাম।
তোমার রচিত সরস সৃষ্টি ,সাহিত্য -সংস্কৃতিতে অশেষ অবদান।

তোমারে আমি ভাবিতে পারি,তোমাতে আমি পারি বাঁচিতে ,
তবু তোমার কথা ভেবে বিহ্বলতায় বিভোর, কিছুই পারিনা যে বলিতে।

ও আমার সর্বকালের সকল রাগ- অনুরাগের
সকল রসের সকল ঋতুর সার্বিক কবি ।
তোমার শব্দ মাঝে প্রেম বাঁধি, আঁকি স্বপ্নের ছবি।

তোমাতে প্রভাত জাগে,তোমাতেই নামে সন্ধ্যা,
তোমার শব্দে সরসতা উর্বর হয়,প্রাণ পায় নীরস- বন্ধ্যা।

তুমি উষ্ণতায়, তুমি কৃষ্ণতায়, বিষাদ-বেদনায়,
তুমি উচ্ছাসে,তুমি উদাসীনতায়।

তোমারে আমি বর্ণিব কেমনে ঠাকুর অজপা!
তোমাতেই যে খুঁজে ফিরি তোমার উপমা।

তোমার বর্ণনায় তোমার সৃষ্টির আশ্রয়ে যাই,
তবু যে সে শব্দ সাগরে তোমার যোগ্য শব্দ নাহি পাই।

তুমি যে ভাবসাগরের কাণ্ডারী,
সকল জনের,সকল মনের অনুসন্ধানী।

ও আমার উপাধী ত্যাগের বৈরাগী,
ও আমার দিনের দিনমণি, তুমি যে মোর রাতের রবি।

মনের বিষাদে যবে রাত নামে মনে মনে,
তুমি এসে গাও “আলোকেরই ঝর্না ধারায় ধুইয়ে দাও”।

ও আমার রাতের রবি , যবে আমি বিনিদ্র রাত রই জেগে তুমি এসে শোনাও কানে কানে,
“তোমায় গান শোনাব তাই তো আমায় জাগিয়ে রাখো ”

ও আমার অভিমানের কবি জননীর মান ভাঙাতেও নিই যে তোমার ঠাঁই ,
গেয়ে যাই “বড়ো আশা করে এসেছিগো কাছে ডেকে লও জননী মোরে”

ও আমার প্রেমের রবি তোমার অনুরাগের আলোয় প্রিয়ের তরে মুগ্ধতায় গেয়ে যাই
” আমারও পরানো যাহা চায় তুমি তাই গো”

কখনো প্রেমের দোলে হৃদয় দুলে গায়
“আমার হৃদয় তোমার আপন হাতের দোলায় দোলাও দোলাও ”

প্রিয় যবে যায় দূরে ,বিরহে তোমার ভাড়ারেই খোঁজে করুন রসের রাগ ।
তবে গায় মন “এই করেছ ভালো নিঠুরহে”

কখনো গায় ” কেটেছে একেলা বিরহেরো বেলা আকাশ কুসুম চয়ণে ,
সব এসে মিলে গেলো শেষে তোমারই দুখানি নয়নে নয়নে”

প্রিয়ের মিলনে মন গেয়ে যায় “মন বীনা ওঠে কোন সুরে বাজি”

ও আমার পাগলপারা কবি তুমি যে শেখালে নদীর উচ্ছাসে বাঁচতে ,
গাইতে শেখালে “ওগো নদী আপন বেগে পাগল পারা”।

যবে আমি একলা উদাস, তুমি “খোলা হাওয়া” হয়ে বলে যাও,
“যদি তোর ডাক শুনে কেউ না আসে তবে একলা চলো রে”

তুমি আমার শেষ বিদায়েও শব্দ সুরে বেঁধে দাও নীরবে বলে যাও
“তুমি রবে নীরবে নিশীথিনী সম”

তোমার বিদায় বেলায় যেতে যেতেও বলে যাও
“যখন পড়বে না মোর পায়ের চিহ্ন বাটে আমি রইবো না ”

তোমার বিদায়ের বেলায় শুধালে তোমায় কোথা যাও মোরে ছাড়ি!!;
তুমি গেয়ে যাও “দাঁড়িয়ে আছো তুমি আমার গানের ওপারে”

তুমি অসাধ্য সেঁধেছো বেঁধেছো বাসা হৃদয়ের ঘরে-ঘরে।
তোমার সবটুকু জানিতে আবারও আসিতে হবে, ফিরে বারে বারে মরণেরও পরে।

—৫শে বৈশাখ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে