ফোনে লোডশেডিংয়ের আগাম তথ্য জানানোর নির্দেশ

0
468

প্রতি বছরই গ্রীষ্মকাল আসতেই দেশের বিভিন্ন জায়গায় বেড়ে যায় লোডশেডিং। মাত্রাতিরিক্ত লোডশেডিংয়ে জনজীবন হয় বিপর্যস্ত। তবে হঠাৎ করে বিদ্যুৎ চলে গেলে প্রস্তুতি নিতে গ্রাহককে আগাম তথ্য জানানোর উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

ঢাকা ইলেকট্রিক সাপ্লাই কোম্পানি (ডেসকো) এরই মধ্যে নিজেদের গ্রাহকদের সেলফোনে এ তথ্য জানিয়ে দেওয়ার কার্যক্রম শুরু করেছে।

বণিকবার্তার খবরে বলা হয়, লোডশেডিংয়ের আগাম তথ্য ফোনে গ্রাহককে জানাতে বিদ্যুৎ বিতরণ সংস্থাগুলোকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ডেসকোর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) মো. শাহিদ সারওয়ার জানান, লোডশেডিংয়ের খবর আগেই গ্রাহককে জানিয়ে দেওয়া হচ্ছে। ফলে কখন লোডশেডিং হতে পারে, তা আগে থেকেই জানতে পারছেন গ্রাহক।

বর্তমানে বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলোর ১৬ হাজার মেগাওয়াটের বেশি স্থাপিত ক্ষমতা। একটি বিদ্যুৎকেন্দ্রের প্রকৃত উৎপাদন ক্ষমতা কেন্দ্রের স্থায়িত্ব, উৎপাদিত বিদ্যুতের মান ও অন্যান্য বিষয় বিবেচনায় নিয়ে নির্ধারণ করা হয়।

উৎপাদিত বিদ্যুতের প্রায় ৫ শতাংশ আবার বিদ্যুৎকেন্দ্র পরিচালনায় ব্যবহৃত হয়। এছাড়াও রয়েছে সঞ্চালন ও বিতরণ পর্যায়ের সিস্টেম লস। ফলে উৎপাদিত বিদ্যুতের পুরোটা গ্রাহক পর্যায়ে পৌঁছানো সম্ভব হয় না।

খাতসংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, চলতি এপ্রিল থেকে আগামী মে পর্যন্ত দেশে বিদ্যুতের চাহিদা দাঁড়াবে প্রায় ১৩ হাজার মেগাওয়াট। বিদ্যুৎ বিভাগের তথ্যমতে, বর্তমানে বিদ্যুতের গ্রাহক সংখ্যা ২ কোটি ৮২ লাখ এবং দেশের ৯০ শতাংশ জনগোষ্ঠী বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় রয়েছে।

 

 

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে