রায়পুরে প্রতিবন্ধী ৩ মাসের অন্ত্বঃস্বত্ত্বা, বিচারের দাবী করায় মাকে পিটিয়ে হাত ভেঙ্গে দিয়েছে!

0
714

অ আ আবীর আকাশ, লক্ষ্মীপুর: লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে এক বাকপ্রতিবন্ধীকে ধর্ষন ও তাকে ৩ মাসের অন্তঃসত্তার অভিযোগ করায় ভিকটিমের মা নয়ন আক্তারকে অমানবিক ভাবে নির্যাতন সহ তাকে পিটিয়ে হাত ভেঙ্গে দিয়েছে যুবলীগ নেতা শিপন। গত শনিবার ২০ এপ্রিল দুপুরে এ ঘটনা ফাঁস করে দেওয়া প্রতিবন্ধীর মাকে পিটিয়ে বাম হাত ভেঙ্গে দেয় বলে অভিযোগ করে স্থানীয় যুবলীগের নেতা শিপন চৌধুরীর বিরুদ্ধে।

অভিযুক্ত লম্পট রায়পুর উপজেলার কচিকাঁচা কিন্ডার গার্টেনের সহকারী শিক্ষক এবং স্থানীয় ওয়ার্ড যুবলীগ নেতা বলে জানা যায়। এ ছাড়া সে একই এলাকার দুলা মিয়া চৌধুরী বাড়ির মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরীর ছেলে বলে জানা গেছে। গত শনিবার ২০ এপ্রিল দুপুরে এ ঘটনা ফাঁস করে দেওয়া মাকে পিটিয়ে বাম হাত ভেঙ্গে দেয় দাবী ভিকটিমের মা নয়নের। ভিকটিম রায়পুরের সোনাপুর ইউনিয়নের চরবগা গ্রামের চৌধুরী বাড়ী ভাড়া টিয়া কৃষকের বাকপ্রতিবন্ধী মেয়ে বলে জানা গেছে। পরে ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে রায়পুর থানায় নিয়ে আসে। এবং তাকে হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনায় তদন্ত চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

স্থানীয়ভাবে জানা যায়, সুযোগ সন্ধানী শিপন চৌধুরীর যৌন লালসার শিকার হয়ে বাক প্রতিবন্ধি (১২) শিশু ৩ মাসের অন্তঃসত্তা হয়ে পড়ে। এ অভিযোগ করেন শিশুটির মা নয়ন আক্তার। ফলে এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়। এতেই ক্ষীপ্ত হয়ে কচিকাঁচা কিন্ডার গার্টেনের সহকারী শিক্ষক ও স্থানীয় ওয়ার্ড যুবলীগ নেতা শিপন চৌধুরী সহ কয়েকজন ঘটনা ফাঁস করায় তার উপর চড়াও সহ অতর্কিত হামলা মারধর শুরু করে। এক পর্যায়ে ভিকটিমের মাকে নির্দয় ভাবে পিটিয়ে তার বাম হাত ভেঙ্গে দেয়। বর্তমানে ওই পরিবারটি চরম নিরাপত্তাহীনতায় ও আতংকে ভুগছে বলে জানায় নয়ন আক্তার।

এ ব্যাপারে শিপন চৌধুরীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, অনেক দুরে আছি, আপনারা রিপোট করবেন না, আমি ( হামলাকারীর সহযোগী ধামাচাপায়) শাকিল চৌধুরীকে বিষয়টি মিট করার জন্য রায়পুর থানায় পাঠিয়েছি। অপেক্ষা করুন আপনাদের সন্মানি দিব। এ দিকে ঘটনার সুষ্ঠ বিচার দাবী করেন ভিকটিমের পরিবার, ফুঁসে উঠেছে স্থানীয়রাও। ভিকটিমের মা নয়ন আক্তার ও বাবা মনিরের দাবী,অসহায় এ পরিবারটি রক্ষায় জেলা ও পুলিশ প্রশাসন দ্রুত কার্যকরী পদক্ষেপ নিবেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে