চৌগাছায় পরকীয়ার জেরে বিষপানে একই পরিবারের তিন জন হাসপাতালে।

0
851

(চৌগাছা প্রতিনিধি) যশোরের চৌগাছা উপজেলার চৌগাছা সদর ইউনিয়নের দঃ কয়ারপাড়া গ্রামে পরকীয়া প্রেমের জেরে একই পরিবারের তিন জন চৌগাছা হাসপালে ভর্তি হয়েছেন।

প্রেমিক দুলাভাই আব্দুর রশিদ (৪৫), তার স্ত্রী আছমা খাতুন (৩৫) ও শালা আজ্জুর স্ত্রী ডলি খাতুন (৩৫) কীটনাশক পানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন।

পরকীয়া জড়িয়ে পড়েন আজুর স্ত্রী ডলি বেগম ও দুলাভাই আব্দুর রশিদ, আজু তিনি মালয়েশিয়া থাকেন দীর্ঘ দিন, এর আগে আব্দুর রশিদ তিনিও বেশ কয়েক বছর বিদেশ ছিলেন। বাড়িতে এসে কৃষি কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন।

স্থানীয়রা জানান, রোববার সন্ধ্যায় দঃ ক্য়ারপাড়া গ্রামের বাড়িতেই প্রথমে আব্দুর রশিদ তার সেচপাম্প থেকে আগের রাখা বিষ তিনি পান করেন, এবং বাড়ি ফিরে আসেন, তার দেখাদেখি একই পাত্রের বিষ তার স্ত্রী আসমা খাতুন ও গোপনে পান করেন।

গ্রামবাসীর সাহায্যে তাদের চৌগাছা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ নিয়ে পারিবারিক ঝামেলায় আজ্জুর স্ত্রী ডলি বেগম এশার নামাজের পরই কীটনাশক পান করেন। সাথে সাথে তাকেও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

তিনজনই বর্তমানে চৌগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছেন। তবে আব্দুর রশিদের স্ত্রীর অবস্তা অনেক ঝুকির মধ্যে।

আব্দুর রশিদ ভালোবেসে আছমা খাতুনকে বিয়ে করেন । তাদের তিনটি সন্তান রয়েছে।
২ সন্তানের জননী ডলির সঙ্গে তার দীর্ঘদিন ধরে পরকীয়া রয়েছে। বিষয়টি জানাজানি হলে রশিদের স্ত্রী একবার আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। পরে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হন।

তখন আব্দুর রশিদ প্রতিজ্ঞা করেন আর এমন করবেন না। কিছুদিন পর আবারো সেই সম্পর্কে জড়ান। সে যাত্রায়ও প্রতিজ্ঞা করে রেহাই পান রশিদ-ডলি। লাগোয়া বাড়ি ও নিকটাত্মীয় বলেই বারবার এভাবে রেহাই পান তারা। তারপরও গোপনে সম্পর্ক রেখে আসছিলেন উভয়েই।

তিনজনই বর্তমানে চৌগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে